kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

সুযোগ নষ্ট সৌম্য এনামুলের

১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সুযোগ নষ্ট সৌম্য এনামুলের

ক্রীড়া প্রতিবেদক : জাতীয় দলে জায়গা হারিয়েছেন সদ্য। আর তাঁদের যে পজিশন, সেই টপ অর্ডার নিয়ে তো বহুদিন ধরেই ভুগছে বাংলাদেশ। সৌম্য সরকার ও এনামুল হকের প্রত্যাবর্তনের দরজাটা তাই সামনেই; পারফরম্যান্স দিয়ে তা ঠেলে খুলতে হবে—এই যা! অমন চোখে পড়ার মতো পারফরম্যান্সের সুযোগটা কাল তাঁরা হাতছাড়াই করলেন। ফিফটি পেরোলেও সেঞ্চুরির দেখা পাননি সৌম্য-এনামুলের কেউ।

জাতীয় লিগের তৃতীয় রাউন্ডের খেলা শুরু হয়েছে জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরুর দিনই। ভেজা আউটফিল্ডের কারণে বরিশালে বরিশাল-রাজশাহীর এবং কক্সবাজারে ঢাকা-সিলেট ম্যাচের প্রথম দিন অবশ্য পরিত্যক্তই হয়ে গেছে। খেলা হয়েছে অন্য দুই ভেন্যুতে। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে রংপুরের বিপক্ষে স্বাগতিকদের দ্বৈরথে সৌম্য-এনামুলের সেই আক্ষেপের গল্প। আর খুলনার স্কোরটাও ওই দুই তারকার মতো। সাত উইকেটে ২৭২ রান ভালো, তবে আরো কত ভালোই না হতে পারত!

জাতীয় লিগের প্রথম রাউন্ডে সেঞ্চুরি করেন ওই দুজনই। দ্বিতীয় রাউন্ডে হাসেনি কারো ব্যাট। তৃতীয় রাউন্ডে ঝলসে উঠেছে আবার। ২৩ রানে ওপেনিং জুটি ভাঙার পর উইকেটে জোড় বাঁধেন এনামুল-সৌম্য। এরপর রংপুরকে হতাশায় ডুবিয়ে তাঁদের ১১১ রানের জুটি। ১০৬ বলে ৫৬ রান করা এনামুলের বিদায়ে স্বস্তি ফেরে রংপুর ক্যাম্পে। ১৪১ বলে ৭৬ রান করা সৌম্যকে বিদায় করে দিয়ে আরো। খুলনার পরের ব্যাটসম্যানদের প্রায় সবাই উইকেটে থিতু হয়ে আউট হওয়ার দোষে দুষ্ট। তাইতো প্রথম দিন শেষ করতে হয় সাত উইকেটে ২৭২ রানে। রংপুরের বাঁহাতি পেসার সাজেদুল ইসলাম নেন চার উইকেট।

আরেক টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ঢাকা মেট্রোর সাদমান ইসলাম রয়েছেন তুখোড় ফর্মে। জাতীয় লিগের আগের দুই রাউন্ডে ১৫৭ ও ১৮৯ রানের দুই ইনিংস তাঁর ব্যাটে। কাল বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া ম্যাচে চট্টগ্রামের বিপক্ষেও তাঁর শুরুটা ভালো ছিল। কিন্তু ইনিংসটা টানতে না পেরে আউট হন ৩৬ রানে। দুই অভিজ্ঞ মোহাম্মদ আশরাফুল ও মেহরাব হোসেন রানের খাতা খোলার আগে আউট হয়ে বিপদে ফেলেন দলকে। ৯৯ রানে চার উইকেট হারিয়ে বসে ঢাকা মেট্রো। ৫০ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট জাতীয় দলের আরেক পুরনো ব্যাটসম্যান শামসুর রহমান। পরে জাবিদ হোসেনের অপরাজিত ৭৯ এবং শরিফুল্লাহর ৪৫ রানে দিন শেষে স্বস্তির অবস্থানেই ঢাকা মেট্রো। ছয় উইকেটে ২৬৬ রান তাদের।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর

(প্রথম দিন শেষে) :

খুলনা-রংপুর : খুলনা : ৮৬ ওভারে ২৭২/৭ (সৌম্য ৭৬, এনামুল ৫৬; সাজেদুল ৪/৫৭)।

ঢাকা মেট্রো-চট্টগ্রাম : ঢাকা মেট্রো : ৯০ ওভারে ২৬৬/৬ (জাবিদ ৭৯*, শামসুর ৫০, শরিফুল্লাহ ৪৫; শাখাওয়াত ২/৩৬, হাসান ২/৭৩)।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা