kalerkantho

শুক্রবার ।  ২০ মে ২০২২ । ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩  

ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাংকিংয়ে মুস্তাফিজ-মুশফিক

১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাংকিংয়ে মুস্তাফিজ-মুশফিক

অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান হারিয়েছেন সাকিব আল হাসান। এশিয়া কাপ দুর্দান্ত খেলা রশিদ খান উঠে এসেছেন শীর্ষে। তবে সুখবর মুস্তাফিজুর রহমান ও মুশফিকুর রহিমের জন্য। বোলিংয়ে মুস্তাফিজ আর ব্যাটিংয়ে মুশফিক এখন নিজেদের ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাংকিংয়ে।

বিজ্ঞাপন

 

এশিয়া কাপটা প্রত্যাশামতো কাটেনি সাকিব আল হাসানের। আঙুলের চোট নিয়ে দেশে ফিরেছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে অঘোষিত সেমিফাইনাল না খেলেই। চার ম্যাচে উইকেট মাত্র চারটি। ব্যাট হাতে করেছেন ৪৯ রান। এরই প্রভাব পড়েছে আইসিসির র‍্যাংকিংয়ে। অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান হারিয়েছেন তিনি। এশিয়া কাপ দুর্দান্ত খেলা রশিদ খান উঠে এসেছেন শীর্ষে। তবে সুখবর মুস্তাফিজুর রহমান ও মুশফিকুর রহিমের জন্য। বোলিংয়ে মুস্তাফিজ আর ব্যাটিংয়ে মুশফিক এখন নিজেদের ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাংকিংয়ে।

আফগানিস্তান এবারের এশিয়া কাপে খেলেছে রূপকথার ক্রিকেট। গ্রুপ পর্বে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা আর বাংলাদেশকে। সুপার ফোরে ভারতের বিপক্ষে করেছে টাই। জিততে জিততে শেষ ওভারে হেরেছে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সঙ্গে। এর অন্যতম নায়ক রশিদ খান। লেগ স্পিন জাদুতে নিয়েছেন ১০ উইকেট। ব্যাট হাতেও করেছেন কার্যকরী ৮৭। জন্মদিনে ফিফটি করেছিলেন বাংলাদেশের বিপক্ষে। অলরাউন্ড র‍্যাংকিংয়ে ছয় ধাপ এগিয়ে তাই শীর্ষে তিনি। রশিদ খানের রেটিং পয়েন্ট ৩৫৩। সাকিব আল হাসান ৩৪১ পয়েন্ট নিয়ে এখন দুইয়ে। তাঁর ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন আরেক আফগান অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবী। ৩৩৭ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে উঠে এসেছেন তিনি।

বোলিংয়ে নিজের ছন্দ খুঁজে পেয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। এশিয়া কাপে ‘কাটার মাস্টারের’ শিকার যৌথ সর্বোচ্চ ১০ উইকেট। আফগানিস্তানের বিপক্ষে শেষ ওভারে জয় এনে দিয়েছেন তিনি। তাতে ৬৫১ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে মুস্তাফিজ চার ধাপ এগিয়ে উঠে এসেছেন ১২ নম্বরে। ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে এটাই তাঁর সেরা অবস্থান। বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে মাশরাফি বিন মর্তুজা ২৭ ও সাকিব আল হাসান রয়েছেন ২৯ নম্বরে। টুর্নামেন্টজুড়ে দুরন্ত গতিতে বল করা রুবেল হোসেন রয়েছেন ৪২ নম্বরে। জাসপ্রিত বুমরাহ ধরে রেখেছেন শীর্ষস্থান। এশিয়া কাপে ৮ উইকেট নেওয়া ভারতীয় পেসারের রেটিং পয়েন্ট ৭৯৭। রশিদ খান ৭৮৮ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছেন দুইয়ে। আর বাঁহাতি স্পিনার কুলদীপ যাদব ৭০০ পয়েন্ট নিয়ে এখন তিনে।

এশিয়া কাপে হেসেছে মুশফিকুর রহিমের ব্যাট। প্রথম ম্যাচে করেন ক্যারিয়ার সেরা ১৪৪। এরপর পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে আউট হন ৯৯ রানে। তাতে ছয় ধাপ এগিয়ে ক্যারিয়ার সেরা ১৬ নম্বরে এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। এটা মুশফিকের ক্যারিয়ার সেরা র‍্যাংকিং। প্রথম ম্যাচ খেলে দেশে ফিরলেও তামিম ইকবাল ধরে রেখেছেন ১৪ নম্বর স্থানটা। এ ছাড়া সাকিব আল হাসান ২৯, মাহমুদ উল্লাহ ৪০ ও সৌম্য সরকার রয়েছেন ৬১ নম্বরে। সবচেয়ে বেশি ১০৭ ধাপ এগিয়েছেন লিটন দাশ। ফাইনালে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিতে লিটন এখন ১১৬ নম্বরে। এ ক্যাটাগরিতে বিরাট কোহলি ধরে রেখেছেন শীর্ষস্থান। রোহিত শর্মা দুই ধাপ এগিয়ে এখন দুইয়ে। আইসিসি



সাতদিনের সেরা