kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাংলাদেশের বোলিং উপদেষ্টা হচ্ছেন ওয়াসিম আকরাম!

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

৯ এপ্রিল, ২০১৪ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাংলাদেশের বোলিং উপদেষ্টা হচ্ছেন ওয়াসিম আকরাম!

এশিয়া কাপের সময় প্রাথমিক আলোচনাটা হয়েছিল কমেন্ট্রি বক্সে বসে। এরপর ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টির সময় সে আলোচনা এগিয়েছে আরো। যত দূর এগিয়েছে, তাতে অচিরেই বাংলাদেশের বোলিং উপদেষ্টা হিসেবে ওয়াসিম আকরামকে দেখা যাওয়াটাও এক রকম চূড়ান্ত হয়ে আছে বলে জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির প্রধান আকরাম খান।

সর্বকালের অন্যতম সেরা ফাস্ট বোলারের কাছে বাংলাদেশের সাবেক এ অধিনায়কই প্রস্তাব নিয়ে গিয়েছিলেন। প্রথম আলাপে আগ্রহ দেখালেও বিস্তারিত আলাপের সুযোগ ছিল না। কারণ এশিয়া কাপ ফাইনালের ধারাভাষ্যের ব্যস্ততা এবং পর দিনই ঢাকা ছাড়ার সূচির কারণে ওয়াসিম বলে গিয়েছিলেন যে ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টির সময়ই এ বিষয়ে কথা হবে। এক ফাঁকে দুই 'আকরাম' এক টেবিলে বসে আলোচনা এগিয়েও নিয়েছেন। বিসিবি পরিচালক আকরাম জানিয়েছেন, 'ওর সঙ্গে আমি দুই ঘণ্টার মতো কথা বলেছি। পূর্ণকালীন কোচ হওয়ার সময় তো আর নেই। তবে খণ্ডকালীন বোলিং উপদেষ্টা হওয়ার মৌখিক সম্মতি জানিয়ে গেছে আমাকে।'

কিন্তু মৌখিক সম্মতিই শেষ কথা নয়। কাগজে-কলমে লিখিত চুক্তি করার ব্যাপারও আছে। সেই সঙ্গে তাঁকে কখন-কোথায়-কিভাবে কাজে লাগানো হবে, এরও একটি রূপরেখা তৈরির ব্যাপার আছে। এসব বিষয়ই বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের পরবর্তী সভায় তুলবেন বলে জানিয়েছেন পরিচালক আকরাম খান, 'ওয়াসিমের সঙ্গে আলাপটা ছিল ব্যক্তিগত পর্যায়ের। বোর্ডকে এখনো এ বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি। পরবর্তী বোর্ড সভায় আমি এটা তুলব। ওকে আমরা বছরে কত দিনের জন্য চাই বা কোন কোন দলের সঙ্গে ওকে জুড়ে দেওয়া হবে, বোর্ড সভায়ই এসব চূড়ান্ত হবে বলে আশা করছি।'

আকরামের কথাতেই পরিষ্কার যে ওয়াসিম আকরামকে নিয়ে ভাবনাটা শুধুই জাতীয় দলকেন্দ্রিক নয়। নিজেও বললেন, 'আমি ব্যক্তিগতভাবে ওয়াসিমকে শুধু জাতীয় দলের বোলিং উপদেষ্টা করার পক্ষপাতী নই।' পাকিস্তানের সাবেক অফস্পিনার সাকলায়েন মুশতাকের সঙ্গে বিসিবির বছরে ১০০ দিনের চুক্তি করার সময়ও আকরাম চেয়েছিলেন যেন তাঁর পরামর্শ তরুণ স্পিনাররাও পায়। তবে সে সময়ের প্রধান নির্বাচক আকরাম খান এক বোর্ড পরিচালক। এখন তাঁর মতামতের গুরুত্বও তাই আগের চেয়ে অনেক বেশি। এ জন্য ওয়াসিমের সঙ্গে চুক্তি হলে তা এ রকমই হওয়ার সম্ভাবনা বেশি, 'আমি বোর্ডকে বলব ওয়াসিমকে যেন সেভাবেই আনা হয়, যেভাবে আনলে সব পর্যায়ের পেস বোলারই তাঁর মূল্যবান পরামর্শ পাবে। একাডেমি থেকে শুরু করে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের তরুণ পেসারদেরই ওয়াসিমের মতো কাউকে পাওয়াটা বেশি জরুরি।'

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা