kalerkantho

শনিবার । ১৩ আগস্ট ২০২২ । ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৪ মহররম ১৪৪৪  

স্বয়ংক্রিয়ভাবে টোলদিতে যা করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পদ্মা সেতুতে প্রচলিত পদ্ধতির বাইরে আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর টোল তোলার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এতে একটি যানবাহনের টোল দিতে সময় লাগবে মাত্র তিন সেকেন্ড। তবে প্রচলিত পদ্ধতিতেও টোল দেওয়ার ব্যবস্থা থাকবে সেতুতে। স্বয়ংক্রিয়ভাবে টোল দিতে চাইলে যানবাহনের মালিকদের একটি সিস্টেম চালু করে নিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

এটা হলো রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি আইডেন্টিফিকেশন (আরএফআইডি)। আগামী ছয় মাস পর দুই প্রান্তে দুটি বুথে স্বয়ংক্রিয়ভাবে টোল নেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, আরএফআইডি সাদা রঙের একটি কার্ড, যা যানবাহনের সামনের অংশের ড্যাশবোর্ডে থাকবে। ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আরএফআইডি নম্বরটি সংযুক্ত থাকবে। অথবা এই আইডিতে অগ্রিম টাকা রিচার্জ করতে হবে। এটি সম্পূর্ণ প্রি-পেইড কার্ড। টোলপ্লাজায় থাকবে একটি যন্ত্র। এতে থাকবে কার্ড রিডার। যানবাহন যতবার পদ্মা সেতুতে উঠে ইটিসি বুথ দিয়ে যাবে, ততবার নির্দিষ্ট পরিমাণ টোলের টাকা স্বয়ংক্রিয়ভাবে কেটে নেওয়া হবে।

পাশাপাশি গাড়ির মালিকের মোবাইলে এসএমএস করে জানিয়ে দেওয়া হবে কত টাকা কাটা হলো। তা ছাড়া রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি আইডেন্টিফিকেশন ডিভাইসটি মূলত কাজ করে বেতার তরঙ্গ ব্যবহার করে। এটি অনেকটা পণ্যের বারকোড দেখার প্রযুক্তির মতো। তবে পার্থক্য হলো, আরএফআইডি ব্যবহার করে কিছুটা দূরের ট্যাগ বা কোডও পড়া যায়। এতে করে টোলপ্লাজায় যানবাহনকে অপেক্ষা করতে হবে না।

জানতে চাইলে পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলেন, আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে সেতুর টোলপ্লাজায় ইলেকট্রনিকস টোল কালেকশন (ইটিসি) বুথের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।  

উল্লেখ্য, টোল তোলার দায়িত্ব পেয়েছে কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশন (কেইসি) এবং চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কম্পানি লিমিটেড (এমবিইসি)। আগামী পাঁচ বছরের জন্য এই দুই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ৬৯২ কোটি ৯২ লাখ টাকার চুক্তি করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা