kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৯ নভেম্বর ২০২২ । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিপরীতে অন্ধকার

মাকসুদা খাতুন

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



[শিক্ষক উৎপল দত্তকে উৎসর্গীকৃত]

 

বৃক্ষরা কি স্বপ্ন দেখে?

অর্জুন, অশোক, তাল-তমাল অথবা শাল-সেগুন, কদম কিংবা জাম?

নির্বাক আকাশের দিকে চেয়ে ওরাও কী চায় :

‘আমাদের সন্তান যেন থাকে দুধে-ভাতে?’

একদা একজন শিক্ষক বৃক্ষের মতন দাঁড়িয়ে ছিলেন আমাদের উঠোনজুড়ে।

তিনি স্বপ্নের কথা বলতেন, তিনি কবিতার কথা বলতেন।

বলতেন, ‘কবিতা না শুনলে অন্ধকারের গহিনে হারিয়ে যাবে একদিন। ’

অশ্বত্থের পাতার মতো তাঁর ছায়াও ছিল বড় স্বাস্থ্যকর, বড়ই নির্মল!

তিনি তাদের স্বপ্নের কথা বলতেন, বলতেন ‘নদীও কাঁদে’!

বলতেন, ‘প্রমিথিউসের মতো চাঁদও ভালোবাসে এই পৃথিবীকে।

বিজ্ঞাপন

একদিন সেই শিক্ষক-বৃক্ষ, নাকি বৃক্ষ-শিক্ষক

একখণ্ড সুন্দর সকালকে আনতে গিয়ে

ঘুমিয়ে গেলেন ক্ষতবিক্ষত চাদর গায়ে দিয়ে,

সুবাসময় এক কদমগাছের নিচে পাশে নিয়ে রক্তাক্ত স্টাম্প।

সেখানে দাঁড়িয়ে আমি বিস্ময়ে হতবাক!

দেখছি অন্ধকার নামছে

সরীসৃপের মতো অন্ধকার নামছে ছাপান্ন হাজার মাইল বর্গমাইলজুড়ে...

 



সাতদিনের সেরা