kalerkantho

রবিবার । ৩ জুলাই ২০২২ । ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ । ৩ জিলহজ ১৪৪৩

বুদ্ধের দর্শনে উপনিষদের প্রভাব ছিল?

বিমল পাল, ইনস্ট্রাক্টর, পার্বতীপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ   

২৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বুদ্ধের দর্শনে উপনিষদের প্রভাব ছিল?

গৌতম বুদ্ধের জন্মের আগেই কতকগুলো উপনিষদের উদ্ভব হয়েছিল বা বর্তমান ছিল। যেহেতু তিনি নতুন ধর্ম দর্শনের প্রবর্তক এবং জন্মসূত্রে ছিলেন আর্য-ক্ষত্রিয়, তাই দর্শন প্রবর্তনে বেদান্ত উপনিষদের কোনো প্রভাব ছিল কি না, থাকলেও কিভাবে তা বুদ্ধের ওপর প্রভাব ফেলেছে তার বিশদ আলোচনা আছে সাধন কমল চৌধুরীর ‘উপনিষৎ ও বুদ্ধ’ বইটিতে। বেদের ভিত্তিতে প্রবর্তিত উপনিষদীয় দর্শন আর বুদ্ধ প্রবর্তিত দর্শনের মৌলিক লক্ষ্য আসলে একই। উপনিষদে যাকে ‘মোক্ষ’ বলা হচ্ছে, বুদ্ধ দর্শনে তার নাম ‘নির্বাণ’, যা মূলত জাগতিক যন্ত্রণা থেকে মানবমনের মুক্তিলাভের নির্দেশক।

বিজ্ঞাপন

উপনিষদ বলে যারা সংসারে ভোগ-বাসনার মোহ থেকে নিজেদের নিবৃত্ত করতে পারে, তারাই ব্রহ্মজ্ঞানের অধিকারী; যে ধারণা মূলত বেদ থেকেই উৎসারিত। ব্রহ্মজ্ঞান লাভেই মানবাত্মার মুক্তি। বুদ্ধ দর্শনও সে কথাই বলে। বুদ্ধ দর্শনের অহিংস নীতি অবলম্বনে আত্মোপলব্ধির চর্চা আর উপনিষদের সর্বপ্রাণে নিজ প্রাণের উপস্থিতি অনুভবে অন্যকে পীড়ন করা থেকে বিরত থাকা মূলত একই রূপ ধারণা। বেদের দর্শনের পরবর্তী অপেক্ষাকৃত আধুনিক দর্শন বেদান্ত বা উপনিষদীয় দর্শনের প্রবাহ বুদ্ধ দর্শনে কতখানি কিভাবে এসেছে বা এসেছে কি না, সেই এক গবেষণাপত্রও বলা চলে এই বইকে।



সাতদিনের সেরা