kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৮। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৫ সফর ১৪৪৩

অবরোধবাসিনীদের দুঃখগাথা

চন্দ্রপ্রভা বর্মণ, কলেজ অব নার্সিং, শেরেবাংলানগর, ঢাকা

৬ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



অবরোধবাসিনীদের দুঃখগাথা

‘অবরোধবাসিনী’ গ্রন্থে তৎকালীন ভারতবর্ষে কুসংস্কার, অবরোধপ্রথার জন্য নারীদের জীবন যেভাবে নিষ্পেষিত হয়েছিল ৪৭টি ঘটনায় সে চিত্র তুলে ধরেছেন বেগম রোকেয়া। তিনি পর্দা চেয়েছেন; কিন্তু বাড়াবাড়ি পছন্দ করেননি। সেকালে মেয়েদের আসল নাম লেখা হতো শুধু বিয়ের কাবিননামায়। যেমন এক জমিদারের তিন মেয়ের ডাকনাম ছিল, ‘বড় গেন্দলা, মেজো গেন্দলা ও ছোট গেন্দলা। তিন মেয়ের সঙ্গে বর তিনজনের বিয়ের সময় তাদের নামের তালিকা মৌলভির কাছে দেওয়া হলো। বর তিনজনই বিয়ের সময় অনুপস্থিত ছিলেন। মৌলভী সাহেব ভুলবশত ১ নম্বর বরের সঙ্গে ছোট গেন্দলার, ২ নম্বর বরের সঙ্গে বড় গেন্দলার এবং ৩ নম্বর বরের সঙ্গে মেজ গেন্দলার বিয়ে দিলেন! আরেকটি ঘটনায় দেখা যায়, ঘরের ভেতর চোর ঢুকলে, বেগানা মরদ চোর যাতে তাদের বিবিদের কণ্ঠস্বর শুনতে না পায় এ জন্য বিবিরা নিজেদের অলংকার খুলে শিয়রে রেখে দিলেন। চোর সব কিছু নিয়ে চলে গেল। ঘটনাগুলোই প্রমাণ করে স্ত্রীলোকরা কী নিষ্ঠুর পরিবেশে জীবন পার করত।



সাতদিনের সেরা