kalerkantho

শনিবার । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৪ ডিসেম্বর ২০২১। ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

বেস্ট সেলারস

১৬ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বেস্ট সেলারস

সার্সি : ম্যাডেলিন মিলার

পুরাণের হাজার বছরের ব্যাপ্তিতে তৈরি হয়েছে ম্যাডেলিন মিলারের উপন্যাস ‘সার্সি’। ‘ওডেসি’র ভয়ংকর চরিত্র সার্সিকে এই উপন্যাসে দেওয়া হয়েছে নায়কোচিত ইমেজ। এই শতকের নারীবাদের ছোঁয়াও লেগেছে তার গায়ে। মনুষ্যসুলভ স্বভাবের কারণে দেবতার ঘরে জন্ম নেওয়া মেয়ে সার্সির জীবনে নেমে আসে অসহনীয় দুর্ভোগ। সূর্যের দেবতা ও মহাশক্তিধর টাইটান হেলিওসের মেয়ে সার্সি বাবার মতো শক্তিধর নয়। তবে সঙ্গলাভের জন্য মানুষের মাঝে মেশার পর বুঝতে পারে, তার মধ্যেও শক্তি আছে; তার ডাকিনিবিদ্যার জোরে সে প্রতিপক্ষকে পিশাচে পরিণত করতে পারে, খোদ দেবতারাও তার জাদুশক্তির কাছে নাজেহাল অবস্থায় পড়ে যায়। তার শক্তি স্বয়ং জিউসের কাছেই হুমকি মনে হয়; জিউস তাকে এক নির্জন দ্বীপে নিক্ষেপ করে। সেখানেই সার্সি তার অলৌকিক বিদ্যার চর্চা চালিয়ে যায়।

 

দ্য বিট্রেইড : কিয়েরা কাস

কিয়েরা কাসের রোমান্টিক উপন্যাস ‘দ্য বিট্রেইড’। তাঁর আগের উপন্যাস ‘দ্য বিট্রোথড’-এর কাহিনির পরবর্তী পর্যায় নিয়ে লেখা হয়েছে এই উপন্যাস। হৃদয় ভেঙে গেলে তাকে আর নিজেই অনুসরণ করা যায় না—এমন সত্যের ওপর তৈরি হয়েছে এই উপন্যাসের কাহিনি। এই উপন্যাসের প্রধান চরিত্র হলিস। তার স্বামী সাইলাস অল্প বয়সে মারা যায়। তখন হলিস কোরোয়ার রাজদরবার ছেড়ে তার স্বামীর পরিবারের সঙ্গেই ভাঙা জীবন কোনো রকমে চালানোর চেষ্টা করে। পরিবারের সব সদস্যই হলিসের প্রতি স্নেহপ্রবণ। তাদের ভালোবাসায় স্মৃতির ক্ষত কাটানোর চেষ্টা করে সে। তবে সাইলাসের চাচাতো ভাই এটান কোনো এক অজানা কারণে হলিসের সদ্য গড়ে তোলা নাজুক শান্তির নীড়ের ওপর আঘাত করতে চায়।

 

আলি ক্রসলাইক ফাদার লাইক সান : জেমস প্যাটারসন

সেরা বেস্ট সেলার লেখকদের অন্যতম জেমস প্যাটারসন। এবার বেস্ট সেলার তালিকায় উঠে এসেছে তাঁর কিশোর গোয়েন্দা উপন্যাস ‘আলি ক্রস : লাইক ফাদার লাইক সান’ নিয়ে। গোয়েন্দা অ্যালেক্স ক্রসের ছেলে আলি ক্রসের গোয়েন্দা অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে চলে এ উপন্যাসের কাহিনি। অ্যালেক্স তার ছেলে আলির প্রথম গোয়েন্দা সফলতার উদাহরণ দেখে বুঝতে পারে, তার ছেলে এই নেশার কারণে শিগগিরই নতুন কোনো রহস্যজটে আটকে যাবে। তবে বাবা কিংবা ছেলে কেউ অনুমান করতে পারেনি, আলি এত তাড়াতাড়ি নতুন কোনো ঘটনা পেয়ে যাবে। আলি ও তার বন্ধুরা অ্যানাকোস্টিলা পার্কে বেড়ানোর সময় সরাসরি একটা অপরাধের ঘটনা প্রত্যক্ষ করে ফেলে। অ্যালেক্স চায়, আলি আপাতত এ ঘটনার তদন্ত থেকে দূরে থাকুক। কিন্তু আলি তাতে রাজি হয় না। যখন সে দেখতে পায়, তার নতুন বান্ধবী জো সমস্যায় জড়িয়ে পড়ছে, তখন সে আরো দৃঢ়চেতা হয়ে ওঠে।

দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস অবলম্বনে

দুলাল আল মনসুর



সাতদিনের সেরা