kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

লাশটি যেন তাদের সঙ্গী

শংকর কুমার বিশ্বাস, নাট্যকর্মী, ঢাকা

২৫ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



লাশটি যেন তাদের সঙ্গী

সেলিম আল দীনের জনপ্রিয় নাটক ‘চাকা’। ১৯৮৬-৮৭ সালে দেশজুড়ে চলা গণ-অভ্যুত্থান ও রাজনৈতিক দলের বাদানুবাদের আবর্তে শহীদের শব নাম-পরিচয়হীন গন্তব্যের দিকে ভেসে যেতে থাকে—এ রকমের বেদনা রয়েছে নাটকের মূলে। এলংজানি নামে একটি গঞ্জ। পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে কাকেশ্বরী নদী। বাহের গাড়োয়ান ক্ষেতমজুরির কাজে দিল সোহাগির বিলের উদ্দেশ যাত্রা করে। তার সফরসঙ্গী এক প্রৌঢ় ও যুবক শুকুরচান। গঞ্জের হাসপাতালে এক যুবকের লাশ পড়ে আছে। বাহের গাড়োয়ানকে ৫০ টাকা ধরিয়ে দিয়ে মর্গে পড়ে থাকা লাশটিকে গন্তব্যে পৌঁছে দিতে বাধ্য করা হয়। কিন্তু লাশের সঙ্গে যে ঠিকানা দেওয়া হয়, তাতে গাঁয়ের নাম খানিকটা মিললেও প্রকৃত ঠিকানা পায় না। তারা বিভিন্ন গাঁয়ে যায়। কিন্তু কেউই লাশটির দায়িত্ব নিতে চায় না। একসময় লাশটির প্রতি মায়া জন্মে বাহের গাড়োয়ান, প্রৌঢ়, শুকুরচান, ধরমরাজসহ সবার। লাশটি যেন তাদেরই সঙ্গী হয়ে ওঠে। অবশেষে নদীর বালুচরে নিজেরাই লাশটি দাফন করে। বেনামি মৃতদেহকে তার পরিজনের কাছে পৌঁছানোর আবর্তনের যে মানবিক যাত্রা সেটিই নাটকের মূল আখ্যান।