kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

বেস্ট সেলারস

১৬ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বেস্ট সেলারস

লেটার : স্টিফেন কিং

মাঝেমধ্যে আমাদের জীবনে কোনো কোনো গোপনীয় বিষয় আমরা চাপা রাখি, রাখতে বাধ্য হই। যখন সে বিষয়টা আলোর সামনে চলে আসে কারো কারো জন্য হয়ে ওঠে অসহনীয়। তেমনি বিষয়বস্তু নিয়ে তৈরি হয়েছে আমেরিকার বেস্ট সেলার লেখক স্টিফেন কিংয়ের নতুন উপন্যাস ‘লেটার’। স্টিফেন কিংয়ের বালকবেলার সঙ্গে কিছুটা মিল পাওয়া যায় এ উপন্যাসের প্রধান চরিত্র বালক জেমি কংক্লিনের : একাকী মা সংগ্রামের মধ্যে বড় করে তুলতে থাকে ছেলে জেমিকে। জেমির জীবনটা অস্বাভাবিক। সে চায়, আর দশটা ছেলের মতো স্বাভাবিক ছেলেবেলা কাটাতে। অন্য কেউ যা দেখতে পায় না এমন সব কিছুই জেমি দেখতে পায়। অন্যরা যা জানে না জেমি তা জানে। অন্যদিকে ভয়ংকর পরিকল্পনাকারী এক নারীও জেমির ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে তার কুটিল চালের বাস্তব রূপান্তর ঘটাতে চায়। এমন সব ঘটনার এক পর্যায়ে জেমি নিজের জন্মরহস্য সম্পর্কে জানতে পেরে বেদনায় জর্জরিত হয়।

লাইফ আফটার ডেথ : সিস্টার সুলজাহ

সিস্টার সুলজাহ তাঁর ‘দ্য কোল্ডেস্ট উইন্টার এভার’ উপন্যাসের পরবর্তী ঘটনা নিয়ে লিখেছেন ‘লাইফ আফটার ডেথ’। উইন্টার সান্টিয়াগা দেখতে সুন্দর, মনেপ্রাণে খুব সাহসী। জগতের সব মানুষের মধ্যে বাবাকেই সবচেয়ে বেশি ভালোবাসে সে। তবে তার মধ্যেও আছে বড় পরিকল্পনা। জীবনে চলার পথে হোঁচট খেতে হয়েছে। সময় এসেছে এখন সেসবের বিনিময় আদায় করার। শত্রুদের পাওনা যথাযথ বুঝিয়ে দিতে চায় সে। বাবার হারানো ক্ষমতা ফিরিয়ে আনতে চায়। তার বন্দি অবস্থায় তার জীবন থেকে দূরে সরে গেছে প্রিয় সঙ্গী মিডনাইট। তাকেও ফিরিয়ে আনতে চায়। তবে অন্যদের মনেও আছে উইন্টারের ওপর ক্ষোভ। তার একসময়ের বান্ধবী এবং ব্যবসায়ের অংশীদার সিমোন খেপে আছে উইন্টারের ওপর। সিমোন কি উইন্টারের মাথা গুলি করে উড়িয়ে দিতে চায়? উইন্টার কি পারবে সিমোনের হাত থেকে নিজেকে বাঁচাতে?

দ্য রোজ কোড : কেট কুইন

ইতিহাসভিত্তিক উপন্যাসের লেখক কেট কুইনের ‘দ্য রোজ কোড’ উপন্যাসের পটভূমিতে রয়েছে দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের সময় থেকে শুরু করে যুদ্ধ শেষ হওয়ার দুই বছর পর্যন্ত সময়ের কিছু ঘটনা। গুপ্ত সংকেতের অর্থ উদ্ধার করতে গিয়ে ঘটনার বেড়াজালে আটকে পড়া তিন নারীর জীবনে ঘটে যাওয়া নাটকীয় ঘটনার সমন্বয় রয়েছে এ উপন্যাসে। নিজেদের ক্ষমতা আর কাজের নেশা একসময় তিনজনকে কাছাকাছি আনে। কিন্তু যুদ্ধের ক্ষয়ক্ষতি আর গোপনীয়তার অসম্ভব চাপ তাদের বিচ্ছিন্ন করে দেয়। যুদ্ধের পর ১৯৪৭ সালে প্রিন্সেস এলিজাবেথ ও প্রিন্স ফিলিপের রাজপরিণয়ের আয়োজন যুদ্ধ-পরবর্তী সময়ে ইংল্যান্ডে আনন্দ-উত্তেজনা তৈরি করে। এমন সময় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া তিন বান্ধবী ওসলা, ম্যাব ও বেথ একটা গুপ্ত চিঠির কারণে আবারও কাছাকাছি চলে আসে। তাদের তিনজনের সেই গুপ্ত শত্রুও এভাবে কাছে আসতে থাকে।

দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস অবলম্বনে দুলাল আল মনসুর



সাতদিনের সেরা