kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ কার্তিক ১৪২৭। ৩০ অক্টোবর ২০২০। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কবিকে দুঃখ দিলে

অসীম সাহা

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



কবিকে দুঃখ দিলে তোমার দুচোখ থেকে ঝরে পড়বে নীল রক্তস্রোত।

উদাসীন আকাশে এক উড়ালপাখির ডানা ভেঙে

আছড়ে পড়বে বিদ্যুতের খেয়ালি চুমুক।

কবিকে উপেক্ষা মানে রাজকীয় শিরস্ত্রাণের ভেতরে

ভিমরুল আর মৌমাছির বসন্ত-উৎসব।

কবিকে উপেক্ষা মানে তোমার উদ্ধত স্তম্ভের ভেতরে

হাজামজা সাগরের স্তম্ভিত ক্রন্দন;

খরস্রোতা নদীর ভেতরে মরুভূমির হাওয়ার নাচন।

উপেক্ষিত কবিরও থাকে চোখের জলের শত নদীর আর্তনাদ

কবিকে দুঃখ দেওয়া মানে ইন্দ্রজিতের আকাশে ঢুকে পড়া

এক টুকরো চাঁদের অভিমান;

কবিকে দুঃখ দিলে ঝরে পড়বে অনাগত সন্তানের খোদার কসম।

তুমি ভেবে দেখো, কবিকে দুঃখ দেবে

নাকি ঝরাপাতার উৎসবের ভেতর থেকে বেরিয়ে আসা

নতুন কুঁড়ির জন্মমুহূর্তের সাক্ষী হয়ে থাকবে?

তোমার প্রসববেদনার মুখর আর্তনাদে

অনাদিকালের পৃথিবীর ধৈর্যহীন স্রোত থেকে ভেসে আসা

অনিঃশেষ চুম্বনের ভেতরে ঠিকরে পড়বে তুমি?

জেনে রেখো, কবিকে দুঃখ দিলে প্রকৃতির সবটুকু দীর্ঘশ্বাস

তোমার বুকের ’পরে আছড়ে পড়বে উদাসী হাওয়ায়।

ধ্বংসস্তূপে লেখা থাকবে দুঃখের আগুনে পোড়া ভগ্নহৃদয় এক কবির এপিটাফ!

মন্তব্য