kalerkantho

শনিবার । ২৭ আষাঢ় ১৪২৭। ১১ জুলাই ২০২০। ১৯ জিলকদ ১৪৪১

বাতাসের ঘর

রেজাউদ্দিন স্টালিন

২৯ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাতাসের ঘর

কিভাবে যে দিন যায় রাত্রি চলে আসে,

আতঙ্ক-কবলিত ভীত ক্যানভাসে।

 

সন্দেহ অধ্যুষিত চম্পক নগরে,

সর্বনাশ হানা দেয় বাতাসের ঘরে।

 

মৃত্যুদূত-হেডিসের পাতালপুরীতে,

গিয়েছে প্রয়াতদের সংবাদ দিতে।

 

অদৃশ্য অণুজীব মেডুসা কি ফের—

জন্ম নিয়ে ছিঁড়ে খাবে কণ্ঠ জোসেফের?

 

অভিধান ছিন্ন ক’রে আশা গেছে চাঁদে,

নির্মম মৃত্যু দেখে গ্রন্থেরা কাঁদে।

 

শবযাত্রার গাড়ি নৈঃশব্দ্য কাঁধে,

বধ্যভূমিতে গেলে অশ্রু বাদ সাধে।

 

ভবিষ্যৎ-অবরুদ্ধ প্রার্থনাগার,

কে কোথায় অস্ত যাবে ইচ্ছা ব্রহ্মার।

 

ন্যুয়র্ক প্যারিস রোম পিকিং হ্যানয়,

স্বেচ্ছানির্বাসনে কেউ কারো নয়।

 

বিজ্ঞান ব্যর্থ হলে কে কাকে বাঁচায়,

বাড়ির বিমান ভেঙে পায়ে হাঁটতে চায়।

 

আঙুলে আকাশ পেলে অন্য দাবি নেই,

করোনা উড়িয়ে নেবে কালবোশেখেই।

 

তুষার গায়েন

করোনা আয়না

 

আমাদের শহরে যখন ভাইরাস আসে সহসা মরণবার্তা নিয়ে

বহু দেশ, মহাদেশ পেরিয়ে মুদ্রিত কাঁটার মুকুটে মৃত্যু-খতিয়ান

বিদূষক হেসে বলে, আমরা ভাইরাসের থেকে বেশি শক্তিমান!

আমাদের বাক্যবাণ আততায়ী করোনার থেকেও অধিক লক্ষ্যভেদী

অধিকতর ঈমান আমাদের, বৈঠা ছাড়াই নদীর জোয়ারে নৌকার দাঁড় বাই!  

বহুরূপী ভাইরাস অদৃশ্য থেকেই দেয় হানা, যুদ্ধের কৌশল বোঝা ভার

আমাদের চৌর্যবৃত্তি তার থেকে আরো মনোহর, গৃহবন্দি মানুষের জন্য

গুদামের গর্ভ ঠেলে বের হওয়া রিলিফের চাল নিমিষে লুকিয়ে ফেলি

পুকুরের স্যাঁতসেঁতে কাদার ভেতর, আমাদের খাটের তলায় জন্ম নেয়

প্রসারিত মরুভূমি—নিপুণ হাতের যত্নে গড়া পরিশোধিত তেলের খনি

এমন সোনালি রঙ, গদগদ কণ্ঠে ঝরে যে তেল নেতার পায়ে, নিত্য বহমান...

 

যতবার রূপ বদলায় অধরা করোনা, ততোধিক আমরা বদলে যাই

আমাদের কোনো মৃত্যুভয় নাই—ক্ষুধায় কাতর বৃদ্ধ চাষিকে এমন

করে মারি যেন হাত পাতা থেকে মৃত্যু হয় তার বেশি, বেশি কামনার!

কেটে আসি কাঁচা ধান কৃষকের ক্ষেতে যেন পত্রিকার পাতা ছেয়ে যায় 

ত্রাতা নেতার ছবিতে মুহুর্মুহু বিজ্ঞাপনের উল্লাসে!  

আমাদের মা’কে ধরেছে যে ভাইরাসে, তাই আমরা বাঁচার জন্য তাকে

ফেলে আসি জঙ্গলের ধারে, হুজুর মরেছে শুনে হাজারে হাজারে গায়ে ঘেঁষে

জড়ো হই গাদাগাদি করে; ঘামে নেয়ে কান্নাকাটি করি যেন মরে গেলে

বেহেশত পাই মরহুম হুজুরের দোয়ায় নিশ্চিত—আয়, আয় না, করোনা

হীনতা ঘুচিয়ে আমাদের তোরা মুক্তি দিতে আয়!

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা