kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিশ্বসাহিত্য

রিয়াজ মিলটন   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



 

 পুরস্কার গ্রহণের পর সিরি

সিরি হাস্টভেডের আস্তুরিয়াস গ্রহণ

এ বছর সাহিত্যে স্পেনের প্রিন্সেস অব আস্তুরিয়াস অ্যাওয়ার্ড পান যুক্তরাষ্ট্রের ঔপন্যাসিক-প্রাবন্ধিক সিরি হাস্টভেড। সম্প্রতি স্পেনের উত্তরের আস্তুরিয়াস অঞ্চলের রাজধানী ওভিয়েদোতে এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে সিরির হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন স্পেনের রাজা ষষ্ঠ ফেলিপের জ্যেষ্ঠ কন্যা ও দেশটির ভাবী রানি প্রিন্সেস লিওনর। আগে স্পেনের মর্যাদাপূর্ণ এ পুরস্কারের নাম ছিল প্রিন্স অব আস্তুরিয়াস অ্যাওয়ার্ডস। ‘প্রিন্স’ ফেলিপে ২০১৪ সালে স্পেনের রাজা হিসেবে অভিষিক্ত হওয়ার পর এ পুরস্কারের নামে পরিবর্তন আসে। রাজা ষষ্ঠ ফেলিপের জ্যেষ্ঠ সন্তান লিওনর। লিওনরই স্পেনের রাজপাটের উত্তরাধিকারী, ভবিষ্যত্ রানি। এ কারণে পুরস্কারের নামও বদলে হয় প্রিন্সেস অব আস্তুরিয়াস অ্যাওয়ার্ডস। ৫০ হাজার ইউরো অর্থমূল্যের এই পুরস্কার সাহিত্য, নাটক-চলচ্চিত্র, সমাজবিজ্ঞান, ক্রীড়া ইত্যাদি ক্ষেত্রে দেওয়া হয়। সিরির জন্ম ১৯৫৫ সালে মিনেসোটায়। ‘হোয়াট আই লাভড’, ‘দ্য সরোজ অব অ্যান আমেরিকান’-এর মতো উপন্যাস, ‘আ প্লি ফর ইরোস’, ‘দ্য শেকিং উইম্যান অর দ্য হিস্টরি অব মাই নার্ভস’-এর মতো গদ্যগ্রন্থের লেখক সিরি হাস্টভেডের প্রতিটি রচনাই সমালোচক-পাঠকের সমাদর পেয়েছে, হয়েছে ব্যাপক আলোচিত। তাঁর সাম্প্রতিক উপন্যাস ‘মেমোরিজ অব দ্য ফিউচার’।

পিটার হ্যান্ডকে

নোবেল কমিটির সাফাই

আইরিশ ঔপন্যাসিক স্যামুয়েল বেকেটকে যেভাবে মূল্যায়ন করা হয়, একদিন হ্যান্ডকেও সেভাবেই মূল্যায়িত হবেন। পিটার হ্যান্ডকেকে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দেওয়ার পক্ষে এভাবেই দাঁড়ালেন নোবেল কমিটির এক সদস্য হেনরিক পিটারসেন। সুইডিশ দৈনিক সভেনস্কা ড্যাগব্লাডেটে লেখা এক নিবন্ধে হেনরিক পিটারসেন বলেন, ‘আমি নিশ্চিত যে, পঞ্চাশ বছরের মধ্যে সুইডিশ অ্যাকাডেমি যত জনকে নোবেলের জন্য নির্বাচন করবে, তাদের মধ্যে সবচেয়ে সুস্পষ্ট নির্বাচন পিটার হ্যান্ডকে, যেমনটা ঘটেছে বেকেটের বেলায়।’ নব্বইয়ের দশকে বসনিয়ার যুদ্ধে সার্বদের সমর্থন দেওয়ার কারণে হ্যান্ডকে ব্যাপক বিতর্কিত। বহুল আলোচিত স্রেব্রেনিসা গণহত্যাকে অস্বীকার করারও অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। তা ছাড়া ঘৃণিত যুদ্ধাপরাধী স্লোভোদান মিলোসেভিচেরও ঘনিষ্ঠজন ছিলেন হ্যান্ডকে। তিনি মিলোসেভিচের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যোগও দিয়েছিলেন। হ্যান্ডকে নোবেল পাওয়ার পর থেকেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সমালোচনার ঝড় ওঠে। নোবেল কমিটির সদস্য হিসেবে পিটারসেনের একজন লেখককে নোবেলের জন্য মনোনীত করার ক্ষমতা থাকে। সাধারণত সদস্যদের মনোনীত ব্যক্তিদের মধ্যেই একজনকে সুইডিশ অ্যাকাডেমি চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়ে থাকে। পিটারসেন ৭৬ বছর বয়সী হ্যান্ডকেকে ‘শান্তির প্রবক্তা বা সমর্থক এবং জাতীয়তাবাদীবিরোধী’ হিসেবে অভিহিত করেন। তাঁর মতে, হ্যান্ডকের রচনা মূলত অরাজনৈতিক। সার্বদের প্রতি তাঁর যে সমর্থনের কথা বলা হচ্ছে, তা আসলে ভুল বোঝাবুঝি ছাড়া কিছুই নয়। তিনি বলতে চেয়েছিলেন যে জার্মানি ও অস্ট্রিয়ার গণমাধ্যমে সার্বদের দৃষ্টিভঙ্গিকে অবহেলা করা হয়েছে।

 জে বার্নার্ড

এলিয়টের লড়াইয়ে জে বার্নার্ড

১৯৮১ সালে দক্ষিণ-পূর্ব লন্ডনের নিউ ক্রস এলাকায় একটি বাড়িতে মধ্যরাতে পার্টি চলাকালে অগ্নিকাণ্ডে ১৩ তরুণ-তরুণী মারা যায়। বিয়োগান্ত ওই ঘটনার আলোকে জে বার্নার্ডের লেখা কবিতার সংকলন ‘সার্জ’। বইটি বার্নার্ডকে এরই মধ্যে কবিতার মর্যাদাপূর্ণ টেড হিউজ পুরস্কার এনে দিয়েছে। জায়গা করে দিয়েছে ফরোয়ার্ড প্রাইজের প্রথম কাব্য সংকলনের সংক্ষিপ্ত তালিকায়ও। বইটি এবার স্থান করে নিয়েছে টি এস এলিয়ট প্রাইজের জন্য মনোনীত বইয়ের সংক্ষিপ্ত তালিকায়। সম্প্রতি এ তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। টি এস এলিয়ট পোয়েট্রি অ্যাওয়ার্ড হচ্ছে কবিতার ওপর দেওয়া যুক্তরাজ্যের সবচেয়ে দামি সাহিত্য পুরস্কার। ১৯৯৩ সাল থেকে এ পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। এবারের পুরস্কারের জন্য মনোনীত সংক্ষিপ্ত তালিকার বইগুলো হচ্ছে—অ্যান্থনি অ্যানাক্সাগোরোর ‘আফটার দ্য ফরমালিটিজ’, ফিওনা বেনসনের ‘ভারটিগো অ্যান্ড ঘোস্ট’, জে বার্নার্ডের ‘সার্জ’, পল ফার্লে-এর ‘দ্য মিজি’, ইলিয়া কামিনস্কির ‘ডিফ রিপাবলিক’, শ্যারন ওল্ডসের ‘অ্যারিয়াস’, বিদ্বান রবিনথিরানের ‘দ্য মিলিয়ন-পেটালড ফ্লাওয়ার অব বিয়িং হিয়ার’, ডেরিন রিস-জোনসের ‘এরাটো’, রজার রবিনসনের ‘আ পোর্ট্যাবল প্যারাডাইস’ এবং ক্যারেন সোলির ‘দ্য কেইপলাই কেইভস’।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা