kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুক হাসপাতাল প্রাঙ্গণ

মেহবিন আক্তার মুসফিকা   

২০ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুক হাসপাতাল প্রাঙ্গণ

ময়মনসিংহের ফুলপুরে রোগী ও তাদের স্বজনদের সচেতন করা শেষে ওয়েস্ট বিন হস্তান্তর

প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাধারণ মানুষ স্বাস্থ্যসেবার জন্য অনেকটাই নির্ভর করে উপজেলার সরকারি হাসপাতালের ওপর। সব শ্রেণি-পেশার নিম্ন আয়ের মানুষের ভরসাস্থল এই সরকারি হাসপাতাল। এখানে সেবা নিতে আসা বেশির ভাগ মানুষই অসচেতন। কোথায় কী ফেললে নোংরা হতে পারে—এ ধারণাই নেই অনেকের।

বিজ্ঞাপন

তাইতো উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ঢুকতেই নোংরা পরিবেশ চোখে পড়ে। যেখানে-সেখানে পানের পিক, কফ, পানির বোতল, ডাবের খোসা এগুলো চোখে পড়ে হরহামেশাই। স্বাস্থ্যসেবা নিতে গিয়ে অস্বাস্থ্যকর এই পরিবেশ কোনোভাবেই আমাদের কাম্য নয়। হাসপাতালে আসা রোগীদের সচেতন করতে এবং যেখানে-সেখানে ময়লা-আবর্জনা না ফেলতে অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ফুলপুর উপজেলা শুভসংঘ। চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও তাদের স্বজনদের সচেতন করেছেন শুভসংঘের বন্ধুরা। এ ছাড়া হাসপাতালের বহির্বিভাগের নিচতলায় ময়লা ফেলার জন্য দেওয়া হয়েছে ৫০ লিটারের ময়লার ঝুড়ি (ওয়েস্ট বিন)। গত ২৭ জুলাই বুধবার সকালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে সঙ্গে নিয়ে এই কাজগুলো সম্পন্ন করেন তাঁরা।

কাগজ, ময়লাসহ বিভিন্ন অব্যবহৃত জিনিস হাসপাতালের ভেতরে না ফেলে নির্ধারিত স্থানে বসানো ওয়েস্ট বিনে রাখার জন্য রোগী ও স্বজনদের অনুরোধ করা হয়েছে। শুভসংঘের বন্ধুরা জানান, চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হতে এসে যদি অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রোগীদের থাকতে হয়, তাহলে হাসপাতাল মানুষের ভরসার জায়গা না হয়ে, ঝুঁকি হয়ে ওঠে। এই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের জন্য দায়ী আমরাই। আরো আছে কর্তৃপক্ষের কিছুটা উদাসীনতা আর সাধারণ মানুষের অসচেতনতা। যেখানে-সেখানে পানির খালি বোতল, টিস্যু পেপারের মতো ময়লা প্রতিনিয়ত সরকারি হাসপাতালগুলোর পরিবেশ করে তুলছে অসহনীয়। এই বিষয়গুলো মাথায় রেখে শুভসংঘ ফুলপুর উপজেলা শাখার উদ্যোগে ‘আপনার স্বাস্থ্য আপনারই হাতে, শুভসংঘ শুভ কাজে সবার পাশে’ স্লোগানে এই কাজটি করা হয়েছে।

আয়োজনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফুলপুর উপজেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জায়েদ মাহবুব খান, আবাসিক চিকিৎসক প্রাণেশ পণ্ডিত, উপজেলা শুভসংঘের উপদেষ্টা কৃষিবিদ কামরুল হাসান কামু, ডা. এরশাদ আলী, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সাংবাদিক আব্দুল মান্নান, শুভসংঘের উপদেষ্টা ও কালের কণ্ঠের প্রতিনিধি মোস্তফা খান। এমন ব্যতিক্রম আয়োজনের জন্য বসুন্ধরা গ্রুপ ও কালের কণ্ঠ শুভসংঘের ভূয়সী প্রশংসা করেন অতিথিরা। ডা. জায়েদ মাহবুব বলেন, ‘কালের কণ্ঠ শুভসংঘ স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক কাজে সব সময় থাকে। করোনাকালে শুভসংঘ ফুলপুর উপজেলা হাসপাতালে টিকা নিবন্ধন করার কাজে অংশগ্রহণ করায় তাদের ধন্যবাদ জানাই। তাদের ব্যতিক্রমী চিন্তা-ভাবনা ও কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানাই। ’ কামরুল হাসান কামু বলেন, ‘স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক কাজ করতে আমরা সব সময় চেষ্টা করি। করোনার সময় টিকাদানে পাঁচ হাজার ফ্রি নিবন্ধন করেছি আমরা। আজকে আমরা এই হাসপাতালে সচেতনতার কাজটি করলাম। একটি ওয়েস্ট বিন বসালাম। নানা গুরুত্বপূর্ণ জনবহুল স্থানে এই ওয়েস্ট বিন বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে শুভসংঘ। ’

এ ছাড়া গত ৩ আগস্ট বুধবার ময়মনসিংহের ফুলপুর থানা পুলিশের কাছে ওয়েস্ট বিন হস্তান্তর করেন শুভসংঘের বন্ধুরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফুলপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন। শুভসংঘকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘শুভসংঘের মাধ্যমে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ইভ টিজিং, মাদক, বাল্যবিবাহসহ জনসচেতনতামূলক প্রচার করা হবে। এসব কাজে আমি শুভসংঘের পাশে থাকব। ’

উপজেলা শুভসংঘের সভাপতি জিয়াউর রহমান পান্না ও সাধারণ সম্পাদক নিশিত সরকার মিঠু বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির দিকনির্দেশনায় ফুলপুর উপজেলা শুভসংঘ সব সময় ব্যতিক্রমী আয়োজন করার চেষ্টা করে। শুভ কাজে সবার পাশে থাকে।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন শিপন মীর, কবি বিল্লাল হোসেন, ইকবাল হোসেন, আতিকুর রহমান টিটু, শ্রাবণী সরকার শান্তি, রাজিয়া সুলতানা বকুল, পিন্টু দাস, শ্যামা সরকার প্রমুখ।



সাতদিনের সেরা