kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

শুভসংঘ রংপুর জেলা শাখার উদ্যোগ

শিশু সিয়ামের চিকিৎসায় সহায়তা

সুচিত্রা পূজা   

১৩ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শিশু সিয়ামের চিকিৎসায় সহায়তা

শিশু সিয়ামের অভিভাবকের হাতে চিকিৎসা সহায়তা তুলে দিচ্ছেন রংপুর জেলা শাখার বন্ধুরা

তিন বছরের ফুটফুটে শিশু সিয়াম। এই বয়সে একাই কাটে তার সারা দিন। কারণ মা-বাবা দুজনই গার্মেন্ট শ্রমিক। নানা-নানির সঙ্গে খুনসুটিতে কেটে যায় শিশুটির সারা বেলা।

বিজ্ঞাপন

নানাবাড়িতেই থাকে সে। গত ২৫ জুন বাড়ির ভেতরেই খেলা করছিল সিয়াম। পাশেই ছিলেন নানা-নানি। কোনো এক ফাঁকে তাঁদের অগোচরে হাঁটতে হাঁটতে রাস্তায় বের হয়ে যায় শিশুটি। রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলাচল করবে—এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু শিশু সিয়ামের তো আর সে বিষয়ে কোনো ধারণা নেই। হঠাৎই একটি দ্রুতগতির ব্যাটারিচালিত অটোভ্যান এসে ধাক্কা দেয় শিশুটিকে। ভ্যানের সঙ্গে শরীর লেগে গুরুতর আহত হয় সিয়াম। মাথায় আঘাত পায় সে। স্থানীয় লোকজন দ্রুত উদ্ধার করে পীরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে ডাক্তাররা রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন। অসহায় মা-বাবা শিশুটিকে নিয়ে পড়েন বিপাকে। তাঁদের স্বল্প আয়ে পরিবার চালানোই যেখানে কষ্টকর, সেখানে সিয়ামের চিকিৎসা করাবেন কিভাবে?

বিষয়টি কানে আসে রংপুর জেলা শুভসংঘের বন্ধুদের। তাঁরা সিয়ামকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানোর সব ব্যবস্থা নেন। তাঁরা সিয়ামের নানাকে অভয় দিয়ে বলেন, আপনি একটুও বিচলিত হবেন না। আজ থেকে সিয়ামের চিকিৎসার দায়িত্ব শুভসংঘের বন্ধুদের।

চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ওষুধ এবং নগদ অর্থ সিয়ামের বাবার হাতে তুলে দেন শুভসংঘ রংপুর জেলা শাখার সভাপতি ইরা হক। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন রংপুর জেলা শুভসংঘের সাধারণ সম্পাদক গোলাম সারওয়ার রাব্বী, রোকসানা খাতুন, নুরজাহান কুসুম, মো. আরিফ হোসেন, জাহিদ হাসান জেমস, সোহেল ইসলাম, হাসান আলী হিমু, ইলোরা এলি, মিশন কুমার, সোহাগ কুমার, রবি দাস প্রমুখ।

সিয়ামের বাবা সাগর মিয়া ও মা সাথি বেগম বলেন, পোলাডা মাথায় আঘাত পাইছে শুইনা সব কাম ফালায় ছুইটা আসছি। আইসা দেহি মাথায় অনেকখানি কাইট্টা গেছে। ডাক্তাররা কইল অপারেশন লাগব। এত টাকা কই থেকে পামু। আমরা তো দিন আনি দিন খাই। এহন শুভসংঘের ভাইরা, আপারা আইসা কিছু টাকা আর ওষুধ কিন্না দিছে। আমার পোলাডার লাইগ্গা দোয়া কইরেন। আমরা আপনেগর লাইগ্গা দোয়া করি।

ইরা হক বলেন, ‘শুভসংঘ থেকে আমরা প্রতিদিনই শিশু সিয়ামের খোঁজ নিচ্ছি। তার যখন যা লাগে আমরা কিনে দেওয়ার চেষ্টা করছি। শুভসংঘ মানবিক কাজে সব সময় এগিয়ে থাকে। আমাদের এই মানবিক কাজগুলো অব্যাহত থাকবে। ’



সাতদিনের সেরা