kalerkantho

শুক্রবার । ৭ মাঘ ১৪২৮। ২১ জানুয়ারি ২০২২। ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শিক্ষা উপকরণ পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হলো ওরা

জাহাঙ্গীর হোসেন   

১৫ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিক্ষা উপকরণ পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হলো ওরা

নতুন বছরে শিক্ষা উপকরণ হাতে শেরেবাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

রাজবাড়ী জেলা শহরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি শেরেবাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি রাজবাড়ী পৌর এলাকায় প্রতিষ্ঠিত হলেও পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আসা দরিদ্র শিক্ষার্থীর সংখ্যাই বেশিই। শিক্ষকদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বরাবরই ভালো ফল করছে এখানকার শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের ভালো ফল ও পড়াশোনায় উৎসাহ জোগাতে এগিয়ে এসেছেন জেলা শুভসংঘের বন্ধুরা।

বিজ্ঞাপন

বিদ্যালয়টির অর্ধশত অতিদরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীর তালিকা তৈরি করেন তাঁরা। তালিকা অনুযায়ী ওই সব শিক্ষার্থীকে নিয়ে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অতিথিদের হাত দিয়ে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে দুটি খাতা ও একটি কলমের প্যাকেট দেওয়া হয়। গত ১০ জানুয়ারি এই আয়োজন সম্পন্ন হয়।

অতিথিরা বলেন, সাধারণত প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেদের অনুষ্ঠানের শ্রীবৃদ্ধি করতে শিক্ষার্থীদের ডেকে থাকে। এ ক্ষেত্রে শুভসংঘ রাজবাড়ীতে ব্যতিক্রমী আয়োজন করেছে। তারা নিজস্ব অর্থায়নে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মুখে হাসি ফোটানোর চেষ্টা করেছে। বছরের শুরুতে সরকারিভাবে বই পেলেও প্রত্যেক শিক্ষার্থীকেই কিনতে হচ্ছে খাতা-কলম। আর ওই খাতা-কলম কিনতে এসব দরিদ্র শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা কিছুটা হলেও আর্থিক কষ্টের শিকার হচ্ছেন। সেখানে শুভসংঘ সামান্য হলেও এসব শিক্ষার্থীর পাশে দাঁড়িয়েছে। তাদের হাতে নতুন খাতা-কলম তুলে দিয়েছে। সমাজের বিত্তবান মানুষ যদি দরিদ্র শিক্ষার্থীদের কথা একটিবারের জন্যও ভাবেন, ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও তাদের সহযোগিতা করেন, তাহলে আনন্দে উদ্বেলিত হবে এই শিক্ষার্থীরা। তারা ভালোভাবে পড়াশোনা করতে আগ্রহী হবে।

খাতা-কলম পাওয়া শিক্ষার্থীরা জানায়, ‘আমরা সরকারিভাবে নতুন বই পেয়েছি। তবে আর্থিক দৈন্যের কারণে এখনো আমাদের কেনা হয়নি নতুন খাতা-কলম। পুরনো খাতা নিয়েই নতুন ক্লাসে উপস্থিত হয়েছি। এরই মাঝে শুভসংঘ আমাদের হাতে নতুন খাতা-কলম তুলে দিয়েছে। ’



সাতদিনের সেরা