kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ মাঘ ১৪২৮। ২৮ জানুয়ারি ২০২২। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

গাছের পেরেক অপসারণ করল শুভসংঘ

গাছ জীবন বাঁচায়, গাছে পেরেক মারবেন না

সানোয়ার ইসলাম   

৯ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



গাছ জীবন বাঁচায়, গাছে পেরেক মারবেন না

প্রকৃতির অপরূপ শোভাবর্ধনকারী গাছ মানুষেরও পরম বন্ধু। প্রাণিকুলের বেঁচে থাকার জন্য প্রধান উপাদান অক্সিজেন সরবরাহ হয় গাছ থেকে। গাছের যে প্রাণ আছে, অনুভূতিশক্তি আছে, তা প্রমাণিত। গাছ সব কিছু বিলিয়ে দিয়ে আমাদের জীবন বাঁচিয়ে রাখছে।

বিজ্ঞাপন

অথচ কিছু অসচেতন মানুষ গাছের সঙ্গে নির্মম আচরণ করছে। উপকারের প্রতিদান হিসেবে জীবন্ত গাছে পেরেক ঠুকে রাখছে। ঝুলিয়ে রেখেছে নানা রকম ব্যানার-ফেস্টুন। যারা এই কাজটি করছে তারা হয়তো জানে না, এতে গাছটি মারাও যেতে পারে। গাছে পেরেক লাগানোয় খাদ্য ও পানি শোষণ প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়ে পরিবেশের যেমন ক্ষতি হচ্ছে, তেমনি সৌন্দর্যও নষ্ট হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, পেরেক লাগানোর কারণে গাছের গায়ে যে ছিদ্র হয় তা দিয়ে পানি এবং এর সঙ্গে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক ও অণুজীব ঢোকে। এতে গাছের ওই জায়গায় পচন ধরে। ফলে গাছের খাদ্য ও পানি শোষণ প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। একসময় গাছটি মরে যায়।

পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় এমন কষ্টদায়ক চিত্র ব্যথিত করে শুভসংঘ বন্ধুদের। তাঁরা সিদ্ধান্ত নেন, গাছে পেরেক ঠুকে লাগানো ব্যানার ফেস্টুন অপসারণের। গত ৫ অক্টোবর মঙ্গলবার সকাল থেকেই তাঁরা নেমে পড়েন গাছের কষ্ট দূর করার কাজে। আটোয়ারী উপজেলা সদরের ফকিরগঞ্জ বাজার থেকে শুরু করে চারপাশে প্রায় এক কিলোমিটার এলাকার গাছ থেকে ব্যানার ফেস্টুন অপসারণ করেন তাঁরা। নিজেরা গাছে উঠে ব্যানার ফেস্টুন নামানোর পাশাপাশি পেরেকগুলো তুলে ফেলেন। এ সময় তাঁরা গাছে পেরেক না লাগানোর জন্য সচেতনতামূলক প্রচারণা চালান। একই সঙ্গে ‘গাছ জীবন বাঁচায়, গাছে পেরেক মারবেন না’ লেখাসহ শুভসংঘের লোগোসংবলিত ব্যানার রশি দিয়ে বিভিন্ন স্থানে টানিয়ে দেন। শুভসংঘের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে উপজেলার সচেতনমহল। বৃক্ষপ্রেমের এই মহৎ কার্যক্রমে অংশ নেন আটোয়ারী উপজেলা শুভসংঘের সভাপতি রাব্বু হোসেন, সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হাসান, সহসভাপতি সোহাগ আলী, আরিফ ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ আলী, রাকিব, সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিদ ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সানোয়ার ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ সুমন, সাহিত্যবিষয়ক সম্পাদক মিলন রহমান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক লিটন ইসলাম, ক্রীড়া সম্পাদক শুভ, নারীবিষয়ক সম্পাদক জেসমিন আক্তার, সহ-নারীবিষয়ক সম্পাদক রিতু আক্তার, কার্যকরী সদস্য স্বপন, মিমি আক্তার, কালাম, তামান্না আক্তার, কাউসার, রাশেদ, সারোয়ার, বাঁধন, রিফাত, কাঞ্চন, জয়, আরিফ, বিজয়, জাহেদ, আরিফ হোসেন ও ফিরোজ।



সাতদিনের সেরা