kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

শুভসংঘ উদ্যোগ

বয়াতির বসতভিটায় নির্মিত হচ্ছে পাকা ঘর

সীমান্ত সাথী   

৮ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বয়াতির বসতভিটায় নির্মিত হচ্ছে পাকা ঘর

কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বন্ধুদের অনুরোধে লোকজ গানের শিল্পী হতদরিদ্র উকিল উদ্দিন বয়াতির বসতভিটায় সেমি পাকা বাড়ির নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে। রংপুরের বদরগঞ্জের ইউএনও মেহেদী হাসানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার হিসেবে উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের আকন্দপাড়ায় গৃহহীন উকিল উদ্দিন বয়াতির ৩ শতাংশ জমির ওপর ঘর নির্মাণের কাজ চলছে।

উকিল উদ্দিন বয়াতি এক কন্যাসন্তান নিয়ে ভাঙা একটি ঝুপড়ি ঘরে বসবাস করতেন। বাসস্থান, ভাত-কাপড়ের অভাবে মানবেতর দিনযাপনের কথাগুলো বদরগঞ্জের মানবিক ইউএনও মেহেদী হাসানকে অবহিত করেন শুভসংঘের বন্ধুরা। ইউএনও তাত্ক্ষণিক উকিল বয়াতির বাস্তবতা যাছাই করে বাড়ি নির্মাণের পদক্ষেপ নেন। অবশেষে উকিল উদ্দিনের বসতভিটায় মনোরম পরিবেশে সেমি পাকা দুটি কক্ষ, একটি রান্নাঘর, একটি টয়লেট ও বারান্দা নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। গত ২৮ এপ্রিল বুধবার সকালে উকিল উদ্দিনের বসতভিটায় যান বদরগঞ্জ উপজেলা কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বন্ধুরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শুভসংঘের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুজ্জামান বাবু, সদস্য ময়দুল হক, শুভঙ্কর পোদ্দার, মোস্তাফিজার রহমান, হৃদয় আহমেদ, রায়হান সরকার, বাবুল মিয়াসহ অন্য বন্ধুরা। উকিল উদ্দিন বলেন, ‘এত দিন সরকারি কোনো সহযোগিতা কপালে জোটেনি। করোনায় চরম দুর্দিনে কাটছে সংসার। ইউএনও স্যারের সহযোগিতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার, ভাঙা ঘর পাকা হচ্ছে। সবার প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা।’

বদরগঞ্জের মানবিক ইউএনও মেহেদী হাসান বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ভূমিহীন, গৃহহীন ও আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য বিশেষ তহবিল থেকে ঘর নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। নিজের বিবেক থেকে বয়াতির জন্য স্থায়ীভাবে কিছু একটা করতে পারায় ভালো লাগছে। সেখানে যাতে তাঁর একমাত্র মেয়েকে নিয়ে সম্মানজনক অবস্থায় বসবাস করতে পারেন এ জন্য যাচাই-বাছাই করে বাড়ি নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। মানবিক সহায়তায় দরিদ্র মানুষের পাশে থাকার জন্য শুভসংঘকে ধন্যবাদ।’



সাতদিনের সেরা