kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

ছোট্ট শিশুটির চিকিৎসা করালেন শুভসংঘ বন্ধু

ভূবন রায় নিখিল   

২৪ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দরিদ্র মা-বাবার এক বছর তিন মাস বয়সী শিশু সাম্মি আক্তার। চোখে আঘাত পেয়ে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিল অনেক দিন ধরে। চোখের যন্ত্রণায় শিশুটি হারিয়ে ফেলেছিল নিজস্ব গতি। এর পরও অর্থাভাবে মেলেনি সুচিকিৎসা। শুভসংঘ নীলফামারী জেলা শাখার সভাপতি আনোয়ার হোসেনের প্রচেষ্টায় সম্পন্ন হয় শিশুটির চোখের অস্ত্রোপচার। নীলফামারী ডায়াবেটিক হাসপাতালে বিনা খরচে অস্ত্রোপচারটি সম্পন্ন করেছেন রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক মো. আতিকুজ্জামান। শিশুটি এখন ফিরতে শুরু করেছে আপন গতিতে। সাম্মি আক্তারের বাবা পেশায় একজন ভ্যানচালক এবং মা অন্যের বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করেন। তাঁদের আয়ে সংসার চালিয়ে চিকিৎসা করাতে পারছিলেন না আদরের মেয়ের। নীলফামারী জেলা শুভসংঘের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘শিশুটির যন্ত্রণা আমি খেয়াল করছিলাম কয়েক দিন ধরেই। তার মা-বাবার সামর্থ্যের বাইরে হওয়ায় চিকিৎসা করাতে পারছিলেন না। বিষয়টি শুনে আমি শিশুটিকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক আতিকুজ্জামানের কাছে নিয়ে যাই এবং অভিভাবকের সংকটের কথা জানাই। তিনি বিনা ফিতে অস্ত্রোপচারের দায়িত্ব নেন। গত ১০ অক্টোবর নীলফামারী ডায়াবেটিক হাসপাতালে শিশু সাম্মির চোখের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হলে প্রয়োজনীয় ওষুধ কিনে দিই। এখন সে ভালো আছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা