kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৪ রবিউস সানি     

লাভলীর বাল্যবিয়ে আটকাল শুভসংঘের বন্ধুরা

প্রতীক কুমার ঘোষ   

১২ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লাভলীর বাল্যবিয়ে আটকাল শুভসংঘের বন্ধুরা

লাভলীর (মাঝে) বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সফল বশেমুরকৃবি শাখার বন্ধুরা

বাল্যবিয়ে একটি সামাজিক অপরাধ। দীর্ঘদিন ধরেই বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে কাজ করছে শুভসংঘ। অনেক জায়গায় বাল্যবিয়ের খবর পেয়েই ছুটে গিয়েছেন শুভসংঘের বন্ধুরা। সফলও হয়েছেন সব জায়গায়। এবার বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সফল হলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরকৃবি) শাখার বন্ধুরা। বিশ্ববিদ্যালয়সংলগ্ন গ্রামের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী লাভলীকে (১৪) জোর করে বিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছিল। শুভসংঘ বশেমুরকৃবি শাখার শুভার্থীরা ঘটনাটি জানতে পেরে দ্রুত ছুটে যান লাভলীর পরিবারের কাছে। তাদের বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে অবহিত করেন এবং বিষয়টি সমাধান করতে সক্ষম হন। শুভসংঘ থেকে লাভলীর পড়ালেখা চালিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব নেন বন্ধুরা। এরপর দরিদ্র পরিবারটি লাভলীকে প্রাপ্তবয়স্ত না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়।

লাভলীর হাতে কলম ধরিয়ে দিয়ে তার লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলে সে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়ে। কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানায়, ‘আমি আরো পড়াশোনা করতে চাই। নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে আমার পরিবার ও দেশকে সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলতে চাই। আপনারা সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।’ লাভলী বশেমুরকৃবি স্কুল থেকে এ বছর জেএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। শুভসংঘ বশেমুরকৃবি শাখার সভাপতি অসীম কুমার দাস বলেন, শুভসংঘ বরাবরই অসহায় ও দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পাশে ছিল, ভবিষ্যতেও কোনো শিক্ষার্থীর যেন এভাবে ঝরে পড়ার আশঙ্কা তৈরি না হয়, সে বিষয়ে আমরা সচেষ্ট থাকব। আরো উপস্থিত ছিলেন বশেমুরকৃবি শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. নূরুজ্জামান শাকির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জাহিদ হোসেন পিয়াস, সাংগঠনিক সম্পাদক আল রাহাত, দপ্তর সম্পাদক প্রতীক কুমার ঘোষ, সহসাংগঠনিক সম্পাদক তাহমিনা আক্তার, সহকোষাধ্যক্ষ মো. মেহেদী হাসান, শিক্ষা ও পাঠক্রম সম্পাদক নাদিয়া সুলতানা, পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা মীম, সদস্য দীপান্বিতা দাস পিউ ও উপমা দাস।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা