kalerkantho

রবিবার  । ১৫ চৈত্র ১৪২৬। ২৯ মার্চ ২০২০। ৩ শাবান ১৪৪১

চবিতে ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন শুরু

তরুণরাই গড়বে আগামীর বিশ্ব

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তরুণরাই গড়বে আগামীর বিশ্ব

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে গতকাল ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলনে দেশ-বিদেশের ৪৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩৫০ ছাত্রছাত্রী ও ২৯ জন বিচারক অংশ নেন। ছবি : কালের কণ্ঠ

‘জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বিশ্বব্যাপী তরুণদের উদ্বুদ্ধকরণ’ স্লোগানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) চার দিনব্যাপী ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন শুরু হয়েছে। বুধবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ মিলনায়তনে সম্মেলন উদ্বোধন করেন অতিথিরা।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতীকী জাতিসংঘ সম্মেলন সংস্থার সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং সানজিদা রহমানের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার।

উপাচার্য বলেন, ‘আজকের এ জাতিসংঘ সংসদে অংশগ্রহণকারী তরুণ প্রতিনিধিদের অভিজ্ঞতা ও মতামতের মাধ্যমে বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জগুলোর সমাধান ওঠে আসবে। যুগোপযোগী চিন্তা ও গবেষণা দিয়ে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হবে। তরুণদের রয়েছে অসীম শক্তি আর উদ্দীপনা। তাদের মাধ্যমেই গঠিত হবে আগামীর বিশ্ব।’

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ ডিন ড. আওরঙ্গজেব, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন  ড. ফরিদ উদ্দীন আহমেদ, আইন অনুষদের ডিন এ বি এম আবু নোমান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌল্লাহ, চবি ছায়া জাতিসংঘের উপদেষ্টা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আইয়ুব ইসলাম প্রমুখ।

আয়োজকরা জানান, এ সম্মেলনে আফগানিস্তান, ভারত, নেপাল, অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের ৪৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ৩৫০ শিক্ষার্থী ও ২৯ জন বিচারক অংশগ্রহণ করেন। এবার প্রতিযোগিদের জন্য ‘প্রিপারেশন টুল’ নামে একটি ট্যাব সংযুক্ত করা হয়েছে। এতে একজন শিক্ষার্থী প্রতীকী জাতিসংঘের শিক্ষাসহায়ক সকল উপকরণ সহজে পেতে পারবেন। এ ছাড়া প্রথমবারের মতো অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলনের সম্যক ধারণা প্রদান করতে বেশ কয়েকটি ওয়ার্কশপ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সাল হতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ধারাবাহিকভাবে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে আন্তর্জাতিকমানের এ আয়োজন। একমাত্র চবিতে প্রতীকী জাতিসংঘ সম্মেলন দেশের ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলনের ইতিহাসে পর পর চার বার সর্ববৃহৎ সেক্রেটারিয়েট সদস্যদের নিয়ে তাঁদের কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা