kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

বিরোধ মধ্যপ্রাচ্যে জিম্মি দেশে

১২ ঘণ্টা নির্যাতনের পর প্রবাসীকে উদ্ধার করল পুলিশ, গ্রেপ্তার ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিরোধ মধ্যপ্রাচ্যে জিম্মি দেশে

মধ্যপ্রাচ্যে প্রবাসকালে পুলিশকে ধরিয়ে দেওয়ার প্রতিশোধ নিতে গিয়ে মো. জিহান উদ্দিন (২৯) নামের এক ব্যক্তিকে জিম্মির পর ১২ ঘণ্টা নির্যাতন চালানো হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত একজন জিহানের বন্ধু। বাকি তিনজন বন্ধুর সহযোগী। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন রুবেল আহম্মেদ টিটু (৩০), মো. আরিফ (৩১), ইয়াছিন আরাফাত (৩০) ও মিনহাজ আলম (৩০)।

ঘটনার বিষয়ে কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহসিন জানিয়েছেন, জিহানকে জিম্মির খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান শুরু করে। অভিযানকালে পাহাড়তলী থানার ঈদগাহ কাঁচা রাস্তার মোড় এলাকার একটি ফ্ল্যাট থেকে জিহানকে উদ্ধার এবং চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। উদ্ধারকৃত জিহান চকবাজার থানার চট্টেশ্বরী এলাকার বাসিন্দা।

ঘটনার বিষয়ে পুলিশ জানায়, জিহানের বাবা দুবাই প্রবাসী। ২০০৭ সালে জিহান দুবাই যান। সেখানে পরিচয় ও বন্ধুত্ব হয় রুবেল আহম্মেদ টিটুর সঙ্গে। গত বছর জিহান দেশে ফিরেন। উদ্ধারকৃত জিহান পুলিশকে জানিয়েছেন, টিটু মাদকসেবী ছিলেন। ২০১৩ সালে টিটুকে দুবাই পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরের বছর কারাগার থেকে ছাড়া পেয়ে টিটু দেশে ফিরেন। আর গত বছর জিহান ফিরে আসার পর তাঁদের মধ্যে পুনরায় যোগাযোগ হয়। এর পর বুধবার বিকেলে জিহানকে টিটু তার ফ্ল্যাটে ডেকে নেয় এবং এক পর্যায়ে ২০১৩ সালে তাকে দুবাই পুলিশকে ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ এনে সেই সময় ও টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য চাপ দেয় এবং জিম্মি করে হাতুড়ি দিয়ে নির্যাতন শুরু করে।

এর পর টিটু বিকাশে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে। পরবর্তীতে জিহান তার মাকে ফোন করে ৫০ হাজার টাকা বিকাশে পাঠানোর কথা বলার সময় ‘আমাকে অপহরণ’ করা হয়েছে বলে উল্লেখ করে। এতে টিটু ক্ষিপ্ত হয়ে আবারও মারধর শুরু করে। রাত ১০টায় ওই ফ্ল্যাটে ইয়াছিন ও মিনহাজ যায়। আগে থেকেই ফ্ল্যাটে ছিলেন আরিফ। তাঁরা ইয়াবাসহ জিহানকে পুলিশে ধরিয়ে দেওয়ার পরামর্শ করেন। এরই মধ্যে জিহানের বোন রাতে থানায় গিয়ে তাঁর ভাইকে অপহরণের অভিযোগ করেন। অভিযোগের পরপরই পুলিশ অভিযান শুরু করে। পরে বিকাশ নম্বরের সূত্র ধরে রাত সাড়ে তিনটায় টিটুর ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে জিহানকে উদ্ধার ও চারজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে চারজনের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা দায়ের করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা