kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

চট্টগ্রামে নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিব্রত ইসি

উপনির্বাচন নিয়ে মতবিনিময় সভায় বোয়ালখালীর ইউএনও-ওসি অনুপস্থিত থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিব্রত ইসি

নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) বিব্রতকর অবস্থায় আছে জানিয়ে নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম বলেছেন, ‘একটা সুনির্দিষ্ট অভিযোগে কাউকে জিজ্ঞাসাবাদ করা যায়। কিন্তু অযথা যাতে কাউকে হয়রানি করা না হয় সেটিও লক্ষ্য রাখতে হবে। আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে হয়তো কারো নাম বলতে পারে। আসলে সে জড়িত কিনা সেটাও খুঁজে বের করা উচিত।’

তিনি গতকাল শনিবার সকালে নগরের সার্কিট হাউসে চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচন নিয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা, বিজিবি-৮ এর পরিচালক লে. কর্নেল মো. মুনীর হোসেন, চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামানসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য এবং উপজেলার নির্বাচনী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কবিতা খানম বলেন, ‘আমি অনুসন্ধানের বিপক্ষে নই। আবার এটাও না যে, ইচ্ছা হলেই তদন্তের নামে একজন জেলা কর্মকর্তা কিংবা রিটার্নিং অফিসারকে তুলে নিয়ে চলে গেলেন-যার সঙ্গে ভোটার করার কোনও সম্পৃক্ততাই নেই। ভোটার হতে কিছু কাগজপত্র দরকার হয়। এগুলো কোথা থেকে আসে সেটা খুঁজে বের করা দরকার।’

জন্মসনদসহ বিভিন্ন সার্টিফিকেটগুলো যারা দিচ্ছে, কীভাবে দিচ্ছে-সেটা খুঁজে বের করে এ অনিয়ম সমূলে উৎপাটন করতে স্থানীয় পর্যায় থেকে অনুসন্ধান করার পরামর্শ দেন তিনি।

চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-নগর আংশিক) আসনের উপনির্বাচন প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘তফসিল ঘোষণার পরে পোস্টার থাকার কথা নয়। আমি আর শুনতে চাই না এলাকায় কোনও পোস্টার ঝুলছে। নির্বাচন কমিশন শুধু চিঠি দিলে হবে না, এলাকা পরিদর্শন করতে হবে। তাছাড়া নির্বাচনের সময় এমন কোনও পরিস্থিতি চাই না, যেখানে প্রাণহানির মতো ঘটনা ঘটে।

তফসিল ঘোষণা থেকে ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত যাতে আইনশৃঙ্খলার কোনো ধরনের অবনতি না হয় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার নির্দেশনা দিয়ে কবিতা খানম বলেন, ‘সবকিছু নিরপেক্ষ দৃষ্টিতে দেখবেন। তাহলে কেউ কথা বলবে না। ম্যাজিস্ট্রেটকে নিয়মিত এলাকা পরিদর্শন করতে হবে। কারণ নির্বাচন নিয়ে কথা হলে কমিশনের দিকে আঙুল উঠবে।’

তিনি বোয়ালখালীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মতবিনিময় সভায় অনুপস্থিত থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা