kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

লোহাগাড়ায় হাতির আক্রমণে নৈশপ্রহরী নিহত

সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লোহাগাড়ায় হাতির আক্রমণে নৈশপ্রহরী নিহত হয়েছেন। তাঁর নাম মো. শাহাব উদ্দিন (৫০)।  মঙ্গলবার রাতে উপজেলার উত্তর কলাউজান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শাহাব উদ্দিন কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভার ভরামহুরী হাজীরপাড়ার মৃত নুরুল হোসেনের ছেলে।

কলাউজান ইউপি সদস্য জামাল হোসেন জানান, ঘটনার দিন গভীর রাতে ১০-১২টি বন্যহাতির একটি দল উত্তর কলাউজান এলাকায় লোকালয়ে হানা দেয়। রাত ৩টার দিকে হাতির পাল শাহ রশিদিয়া ফাজিল মাদরাসার পূর্ব পাশে টংকাবতী খালে নির্মাণাধীন সেতু এলাকায় অবস্থান করছিল। এদিকে, লোকালয়ে হাতি আসার খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজনের মধ্যে হৈ-চৈ পড়ে যায়। তখন নির্মাণাধীন সেতুর পাশে অস্থায়ীভাবে ঘর নির্মাণ করে থাকা ঠিকাদারের নৈশপ্রহরী শাহাব উদ্দিন ঘুম থেকে ওঠে টর্চলাইটের আলো ফেলে। এ সময় পাশে থাকা একটি হাতি প্রথমে তাঁকে শুঁড়ে তুলে ছুড়ে মারে পরে পা দিয়ে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়। বিষয়টি বুঝতে পেরে সেখানে থাকা ঠিকাদারের অন্য শ্রমিকরা দ্রুত পালিয়ে যায়। বুধবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে।

লোহাগাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. রাশেদুল ইসলাম জানান, স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের পদুয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. সারওয়ার জাহান জানান, ৫ দিন আগে লোহাগাড়ার চরম্বা এলাকায় ১০-১২টি হাতির লোকালয়ে হানা দেয়। গত শনিবার রাতেও হাতির আক্রমণে নুরুল ইসলাম নামে এক কৃষক নিহত হন। এ ছাড়া ৪টি বসতঘর তছনছ হয়। এরপর থেকে হাতির পালটি দিনের বেলায় পাহাড়ে ঢুকে পড়ে আর রাতে লোকালয়ে এসে ধান খেয়ে ফেলে এবং বসতঘরে ভাঙচুর চালায়। গত মঙ্গলবার রাতে হাতির পালটি প্রথমে চরম্বার মাইজবিলায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। পরে গভীর রাতে হাতির পালটি কলাউজানের দিকে যায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা