kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

নাশকতার আগুন!

রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উপজেলার ৭ নম্বর সদর রাউজান ইউনিয়নে এক সপ্তাহের ব্যবধানে পাঁচটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুড়ে যায় পাঁচ দোকান এবং মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের ঘরসহ পাঁচ বসতঘর। সর্বশেষ শনিবার রাতে একই ইউনিয়নে দুটি পৃথক স্থানে আগুনে দোকান ও রান্নাঘর পুড়ে গেছে। আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বসতঘর। স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এসব অগ্নিকাণ্ডকে ‘নাশকতা’ বলে মন্তব্য করেছেন।

জানা যায়, ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কেউটিয়া বড়পাড়ার বাসিন্দা সাবেক মেম্বার সুমন কল্যাণ বড়ুয়ার ঘরে শনিবার দিবাগত রাত দুটার দিকে আগুন লাগে। দাহ্য পদার্থ দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে অভিযোগ করে সুমন কল্যাণ বড়ুয়া বলেন, ‘যে ঘরে আগুন ধরেছে সেখানে কোনো চুল্লি বা আগুন লাগার মতো কিছু নেই। কোনো দুষ্কৃতকারীর কাজ এটি। রান্নাঘর পুড়ে যাওয়ার পর মূলঘর ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে গেলে ঘর থেকে বের হয়ে সবাইকে ডেকে তুলি। এরপর প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আগুন নেভায়। পরে রাউজান ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড ডিফেন্স সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে আসে। আগুনে মূলঘরও কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।’

এদিকে একই রাতের তিনটার দিকে ওই ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর আলম সওদাগর প্রকাশ বালি সওদাগরের টিনশেডযুক্ত সেমিপাকা দোকান আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আগুনে পুরো দোকান ভস্মীভূত হয়। রাউজান ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে শুক্রবার ভোর পৌনে ৪টার দিকে ইউনিয়নের মাঝিপাড়া হযরত মৌলানা আমীর হোসেন শাহ (র.) এর বাড়ির জানে আলম, জাহাঙ্গীর আলম ও মো. আলমগীরের ঘরের মূল দরজায় বাইরে থেকে আটকে দিয়ে রান্নাঘরে দুর্বৃত্তরা আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ করেছেন সংশ্লিষ্টরা। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

এ ছাড়া গত সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর চৌধুরীর বসতঘর ও দোকানে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। এর আগে ৩০ নভেম্বর ভোরে রমজান আলী হাটে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু জাফর চৌধুরীর মালিকানাধীন আরো দুটি দোকান এবং গাউছিয়া ডেকোরেটার্স পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল।

রাউজান ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড ডিফেন্স সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম অগ্নিকাণ্ডের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

একের পর এক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা সম্পর্কে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বি এম জসিম উদ্দিন হিরু বলেন, ‘এক সপ্তাহের মধ্যে এতগুলো আগুনের ঘটনা নাশকতা ছাড়া আর কিছুই নয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা