kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

সোনা পাচার একজনের ১০ বছরের সাজা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুবাই থেকে সোনা পাচার করে আনার দায় প্রমাণিত হওয়ায় মোহাম্মদ জামাল ওরফে ইসমাইল নামের একজনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল রবিবার চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান এই রায় ঘোষণা করেন। রায়ের আগে আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। রায়ের পর পুনরায় কারাগারে ফিরিয়ে নেওয়া হয়। দণ্ডিত মোহাম্মদ জামাল চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার পশ্চিম গুজরা গ্রামের মৃত নুরুল আমিনের ছেলে।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর মো. ফখরুদ্দিন চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আসামির বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত আসামিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন।’

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৭ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি সকালে দুবাই থেকে বিমানযোগে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেন যাত্রী মোহাম্মদ জামাল। এ সময় শুল্ক গোয়েন্দারা তার শরীর তল্লাশি করে পায়ুপথে বিশেষভাবে লুকানো অবস্থায় ছয়টি সোনার বার ও ২৫ গ্রাম গয়না উদ্ধার করে। এই ঘটনায় শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. আবদুল হালিম ভুঁঞা বাদী হয়ে পতেঙ্গা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ ওই বছরের ২৪ মার্চ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। পরবর্তীতে ১৭ জুলাই আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন আদালত। রাষ্ট্রপক্ষের সাতজনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত গতকাল রবিবার রায় ঘোষণা করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা