kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

করমেলার তৃতীয় দিন

আয় কমেছে, জমা ৭৪ কোটি টাকা

বান্দরবান ও খাগড়াছড়িতে আয়কর মেলা উদ্বোধন পটিয়ায় আজ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



আয়কর মেলার দ্বিতীয় দিন শুক্রবার রাজস্ব আদায় ৮৫ কোটি টাকা হলেও তৃতীয় দিনে আয়ের পরিমাণ কমেছে। গতকাল শনিবার আয়কর জমা পড়েছে ৭৪ কোটি টাকা। শুক্রবারের চেয়ে শনিবার সেবা গ্রহীতার সংখ্যাও কমেছে। তবে রিটার্ন জমার পরিমাণ বেড়েছে। মেলার তিনদিনে মোট ১৯২ কোটি ৫১ লাখ টাকার রাজস্ব জমা পড়েছে।

এদিকে সময় যত গড়াচ্ছে আয়কর মেলার পরিধি ততই বাড়ছে। বৃহস্পতিবার আয়কর মেলা শুরু হয়েছিল শুধু চট্টগ্রাম শহরে। শুক্রবার পরিধি বেড়ে কক্সবাজার ও রাঙামাটি জেলা এবং সীতাকুণ্ড উপজেলায় করমেলা শুরু হয়। এরপর শনিবার পরিধি আরও বেড়ে চার জেলা কক্সবাজার, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান এবং সীতাকুণ্ড ও টেকনাফ উপজেলায় করমেলা শুরু হয়েছে।

পরিধি বাড়লেও রাজস্ব আয় কমার কারণ কী জানতে চাইলে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-১ কমিশনার মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘শুক্রবার ছুটির দিন থাকায় স্বাভাবিকভাবেই মেলায় রাজস্ব আয় ও সেবা গ্রহীতা অনেক বেশি ছিল। কোনো বড় প্রতিষ্ঠান বা কোনো বড় অংকের রাজস্ব হয়তো জমা হয়নি শনিবার; সেজন্য রাজস্ব হয়তো কিছুটা কম হয়েছে। কিন্তু সেটা নিয়ে আমাদের খুব বেশি চিন্তা নেই। কারণ সেবা দেওয়াই মেলার মূল লক্ষ্য।’

তিনি বলেন, ‘এরপরও আশা করছি মেলা শেষে গত বছরের চেয়ে এবার বেশি রাজস্ব আয় হবে।’

কর বিভাগ বলছে, গত শুক্রবার ছুটির দিনে ৫৮ হাজার ব্যক্তি করসেবা নিয়েছেন। প্রথমদিন এই সংখ্যা ছিল ২০ হাজার ৮শ জন। তৃতীয় দিনে সেবা গ্রহীতার সংখ্যা ছিল ৫১ হাজার। আর প্রথম দিন মেলা থেকে রাজস্ব আয় হয়েছে ৩৩ কোটি টাকা, দ্বিতীয় দিন আদায় হয়েছে ৮৫ কোটি টাকা আর গতকাল আয় হয়েছে ৭৪ কোটি টাকা। তিনদিনে মোট ১৯২ কোটি ৫১ লাখ টাকার রাজস্ব আয় হয়েছে।

কর বিভাগ জানিয়েছে, আয়কর মেলার প্রথম দিনে চট্টগ্রামে ৪ হাজার ৯৩৩টি রিটার্ন জমা পড়েছে। দ্বিতীয় দিন রিটার্ন জমা পড়েছে ৭ হাজার ১১৫টি, তৃতীয় দিন রাজস্ব কম জমা হলেও রিটার্ন জমা পড়েছে বেশি সাড়ে ৮ হাজারটি। তিনদিনে মোট রিটার্ন জমা পড়েছে ২০ হাজার ৬শটি।

প্রথম দিনেই নতুন ইলেকট্রনিক টিআইএন নিয়েছেন ৪৬১ জন। দ্বিতীয় দিন ২২৫টি এবং তৃতীয় দিন ৩৬১টি ই টিআইএন জমা পড়েছে। তিনদিনে মোট ই টিআইন নিয়েছেন ১ হাজার ৪৭টি। 

মেলার তথ্য ব্যবস্থাপনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও অতিরিক্ত কর কমিশনার মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘মেলা শুরুর পর থেকেই চট্টগ্রামের চারটি কর অঞ্চল, একটি কর জরীপ অঞ্চল ও একটি বৃহৎ করদাতা ইউনিটের মধ্যে সবচে বেশি কর জমা পড়েছে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-১ এ। গতকাল তৃতীয় দিনেই কর জমা পড়েছে প্রায় সাড়ে ৩৭ কোটি টাকা; যা মেলায় মোট জমা পড়া করের ৫০ শতাংশ।’

উল্লেখ্য, নগরের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে আয়কর মেলায় নতুন ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন, রিটার্ন দাখিলসহ সব আয়কর সেবা দেওয়া হচ্ছে। আগামী ২০ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত আয়কর মেলা চলবে। মেলায় নতুন করদাতারা ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন, রিটার্ন দাখিল, ই-পেমেন্টসহ সব ধরনের সেবা একই ছাদের নিচে পাবেন। মেলায় রয়েছে সোনালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক, জীবন বিমা, সঞ্চয় অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৪৬টি বুথ। মেলায় দুই শিফটে ৬৫০ জন কর কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করছেন।

বান্দরবান থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানান : ‘আয়করে প্রবৃদ্ধি-দেশ ও দশের সমৃদ্ধি’ স্লোগানে বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে শনিবার থেকে ৪ দিনব্যাপী আয়কর মেলা শুরু হয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি সকালে আয়কর মেলা উদ্বোধন করেন।

চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-২ এর অতিরিক্ত কর কমিশনার শামিনা ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বান্দরবানের পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শফিউল আলম, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সিং ইয়ং ম্রো, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ কে এম জাহাঙ্গীর, বান্দরবান চেম্বার অব কমার্সের ভাইস প্রেসিডেন্ট লক্ষ্মীপদ দাশ এবং বান্দরবানের সেরা করদাতা অমল দাশ বক্তব্য দেন। যুগ্ম কর কমিশনার দীপংকর চৌধুরী এতে স্বাগত বক্তব্য দেন।

করমেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত মীর আবু সালেহ মহিউদ্দিন জানান, মেলায় নতুন করদাতাদের রিটার্ন ফরম পূরণ এবং পুরাতন করদাতাদের আয়কর রিটার্ন জমা এবং কর পরিশোধে সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত করমেলা খোলা থাকবে।

খাগড়াছড়ি থেকে প্রতিনিধি জানান : শনিবার সকালে শুরু হয়েছে চার দিনব্যাপী আয়কর মেলা। খাগড়াছড়ি অরুণিমা কমিউনিটি সেন্টারে মেলা উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী মর্যাদার শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-৩ কমিশনার মো. মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শানে আলম, পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম, খাগড়াছড়ি চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সহসভাপতি মোহাম্মদ কাশেম, প্রেস ক্লাব সভাপতি জীতেন বড়ুয়া প্রমুখ। মেলা চলবে মঙ্গলবার পর্যন্ত।

পটিয়া থেকে প্রতিনিধি জানান : আজ রবিবার শুরু হচ্ছে দুই দিনব্যাপী আয়কর মেলা। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সকাল ১০টায় মেলা উদ্বোধন করবেন সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী। কর অঞ্চল-১ এর অতিরিক্ত কর কমিশনার সফিনা জাহানের সভাপতিত্বে মেলায় বিশেষ অতিথি থাকবেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবুল হাসান, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশীদ প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা