kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

মিরসরাই আওয়ামী লীগের কাউন্সিল কাল

মোশাররফপুত্র রুহেলকে নিয়ে নানা আলোচনা

এনায়েত হোসেন মিঠু, মিরসরাই (চট্টগ্রাম)   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মোশাররফপুত্র রুহেলকে নিয়ে নানা আলোচনা

মাহবুবুর রহমান রুহেল

দীর্ঘ ৫০ বছরের বর্ণিল রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি। যদিও বার্ধক্য তাঁকে মাঠের রাজনীতিতে কাবু করতে পারেনি এখনো। তবু স্থানীয় রাজনীতিতে তাঁর মেজ ছেলে তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ মাহবুবুর রহমান রুহেলের সরব উপস্থিতি জানান দিচ্ছে বাবার সঙ্গে মিরসরাই আওয়ামী লীগের হাল ধরছেন তিনি!

আগামীকাল শনিবার মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল। এর আগে ২৪ অক্টোবর শুরু হয়ে ৪ নভেম্বর শেষ হওয়া ইউনিয়ন ও পৌরসভা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে রুহেলের সরব উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। এলাকায় প্রচার আছে, তাঁর সমর্থিত প্রার্থীরাই বেশির ভাগ ইউনিয়ন ও পৌরসভা শাখায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। দলের নেতাকর্মীরা শনিবারের কাউন্সিলে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের পাশাপাশি রুহেলের ছবিও প্রচার-প্রচারণায় ব্যবহার করছেন।

মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, ‘মাহবুবুর রহমান রুহেল এক যুগেরও বেশি সময় ধরে স্থানীয় রাজনীতির সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত আছেন। চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘ সাত বছর দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।’

মিরসরাইয়ে আওয়ামী রাজনীতির ‘নেপথ্য কুশীলব’ হিসেবে রুহেলের ভূমিকা সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘১৯৯৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শে বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র সজীব ওয়াজেদ জয় ও রুহেল বাংলাদেশে প্রথম কম্পিউটার টেকনোলজি ট্রেনিং সেন্টার প্রতিষ্ঠা করেন ঢাকায়। বেইস লিমিটেড নামে ওই ট্রেনিং সেন্টার বর্তমানে দেশের প্রথম সারির সফ্টওয়্যার টেকনোলজি ফার্ম হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। যার মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নবীজ বপন করেন প্রধানমন্ত্রী।’

রাজনীতিতে অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে মাহবুবুর রহমান রুহেল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বিশ্বায়নের এ যুগে বাংলাদেশকে সমগ্র পৃথিবীতে ব্র্যান্ডিং করার জন্য রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘আমি রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। যেহেতু পারিবারিকভাবে রাজনীতির রক্ত আমার শরীরে, তাই রাজনীতি আমাকে কাছে টেনে নিয়েছে। প্রথমে আমি আমার গ্রাম এবং ২০১২ সালে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হই।’

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তানভীর হোসেন তপু বলেন, ‘রুহেলের মতো একজন পরিচ্ছন্ন মানুষ মিরসরাইয়ে আওয়ামী লীগের হাল ধরলে আগামীতে সুন্দর কিছু প্রত্যাশা করতে পারি। আশা করছি, তিনিই আগামী দিনে মিরসরাই আসনে আওয়ামী লীগের এমপি প্রার্থী হবেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা