kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

উত্তর চট্টগ্রামে বিশাল জশনে জুলুস অনুষ্ঠিত

রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে উত্তর চট্টগ্রামের ১৯তম জশনে জুলুস গতকাল শুক্রবার রাউজান ও ফটিকছড়ি উপজেলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর আগমন উপলক্ষে বিশাল এই আনন্দ মিছিল সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত রাউজান উপজেলার প্রায় এলাকা ও পার্শ্ববর্তী ফটিকছড়ির কয়েকটি ইউনিয়নের সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে নবীপ্রেমিকদের ঢল নামে। জুলুসে নেতৃত্ব দেন গর্জনীয়া ফাজিল মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ আল্লামা আহসান হাবীব।

প্রতিবছরের মতো হাঁটার পরিবর্তে এবার যানবাহনে করে জুলুসের সিদ্ধান্ত হয়। জুলুসে অংশ নিতে সকাল ৭টা থেকে নানা বয়সী নবীপ্রেমিকরা ব্যানার, ফেস্টুন, কালেমা ও দরুদ শরিফ সংবলিত পতাকা নিয়ে উপস্থিত হতে থাকে রাউজানের উত্তর সর্তা দরগাহ বাজারে। জুলুসকে কেন্দ্র করে রাউজানে ব্যাপক আনন্দ পরিলক্ষিত হয়। জুলুসটি দরগাহ বাজার থেকে শুরু করে ফটিকছড়ির কোর্টের পার ও তকিরহাট, রাউজান নোয়াজিশপুর, দলইনগর, কালাচাঁন্দাহাট ব্রিজ, গহিরা চৌমুহনী, রাউজান সদরের মুন্সিরঘাটা, আদালত ভবন হয়ে এয়াছিন শাহ পাবলিক কলেজ ময়দানে জুলুসের সমাপ্তি ঘটে।

জুলুস শেষে কলেজ মাঠে অধ্যক্ষ আল্লামা সৈয়দ আহসান হাবীবের সভাপতিত্বে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা পরিচালনা করেন জুলুস কমিটির মহাসচিব ও আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবুল আলম এবং সৈয়দ মোহাম্মদ আলী আকবর তৈয়্যবী। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আল্লামা গোলাম মোস্তফা শায়েস্তা খান আল আযহারী। বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ নেতা এস এম বাবর, আল্লামা ইদ্রিছ আনছারী, সাংবাদিক মাওলানা এম বেলাল উদ্দিন। এ সময় মিলাদ কিয়াম পরিচালনা করেন মাওলানা মনছুর আলম নেজামী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আল্লামা সাঈদুল আলম খাকী, মাওলানা কলিম উল্লাহ নুরী, শায়ের মো. জিয়া উদ্দিন, শায়ের মো. ওসমান, ছাত্রসেনা নেতা সাদ্দাম হোসেন, মুসা মাহমুদ, কুতুব উদ্দিন, জমির উদ্দিন সানী প্রমুখ। পরে মোনাজাতের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শেষ হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা