kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পণ্য পরিবহনে ‘ঈগল রেল’ বানাতে চায় বন্দর

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পণ্য পরিবহনে ‘ঈগল রেল’ বানাতে চায় বন্দর

‘ঈগল রেল’ স্থাপন করার সমীক্ষা যাচাই করতে আমেরিকান কম্পানি ঈগল রেল কন্টেইনার লজিস্টিকসের সঙ্গে গতকাল বন্দর ভবনে চুক্তি করেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। ছবি : কালের কণ্ঠ

কন্টেইনার পরিবহনের আধুনিক প্রযুক্তি ‘ঈগল রেল’ স্থাপন করতে চায় চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ। এ পদ্ধতিতে ভূমি থেকে ৫০ ফুট উঁচুতে একটি রেল ট্র্যাক স্থাপন করা হবে; সেই লাইন দিয়ে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্দর থেকে পণ্যবাহী কন্টেইনার পতেঙ্গা সাগরতীরে প্রস্তাবিত বে-টার্মিনালে, ওভার ফ্লো ইয়ার্ড ও কন্টেইনার ডিপো এছাক ব্রাদার্সে পরিবহন করা হবে।

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ওই তিনটি রুটে ‘ঈগল রেল’ স্থাপন করার সমীক্ষা যাচাই করতে আমেরিকান কম্পানি ঈগল রেল কন্টেইনার লজিস্টিকসের (ইউএসএ) সঙ্গে চুক্তি করেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার বন্দর ভবনে এই চুক্তি হয়। বন্দরের পক্ষে চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরল জুলফিকার আজিজ এবং ইউএসএর পক্ষে মাইক ওয়াইসুকি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

এদিকে বন্দরের ভেতর থেকে কন্টেইনার নিয়ে যেতে সড়ক-রেলপথের মতো সহজলভ্য ও সাশ্রয়ী পদ্ধতির বদলে উচ্চাভিলাষী এই ঈগল রেল প্রকল্প বাস্তবায়ন কতটা যৌক্তিক তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রশাসন ও পরিকল্পনা) জাফর আলম বলেন, ‘আমেরিকান কম্পানিটি নিজ খরচে তিনটি রুটে এই সমীক্ষা যাচাই করবে। আমরা বুয়েটের এক বিশেষজ্ঞকে টিমে রাখতে বলেছি যাতে সেটা জাস্টিফাই হয়। কম্পানিটি দুই বছর ধরে সমীক্ষা চালাবে। তবে এখনই তাঁরা কাজ শুরু করবেন এবং আগামী তিন মাসের মধ্যেই একটি রিপোর্ট দেবেন।’

তিনি বলেন, ‘সমীক্ষাতে প্রতিটি কন্টেইনার পরিবহন খরচ, প্রকল্প ব্যয়, পরিচালনা ব্যয়, পরিবেশগত বিষয় এবং ভূমি ব্যবহার সব ওঠে আসবে। এরপর তাঁদের রিপোর্টে আমরা (বন্দর) একমত হলে বাস্তবায়নের জন্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে এরপর কাজ শুরু হবে।’

তবে বন্দরের একাধিক ব্যবহারকারী বলেন, বন্দর থেকে একটি ডেডিকেটেড রেললাইন স্থাপন করে বে-টার্মিনালে নিয়ে গেলেই ঈগল রেল স্থাপনের প্রয়োজন পড়ে না। কারণ বন্দরে রেললাইন আছে আর রেললাইন স্থাপন সবচেয়ে বেশি সহজ ও পরিবহন খরচ সবচেয়ে কম। কিন্তু বিদ্যুত্চালিত এই ঈগল রেল স্থাপন ব্যয় ও পরিচালনা অনেক বেশি কঠিন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা