kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মাঠ দিবসের অনুষ্ঠানে কৃষি বিজ্ঞানীরা

জুমচাষের নতুন প্রযুক্তির জন্য কাজ করছে কেজিএফ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



পাহাড়ি জমিতে প্রতিবছর চাষাবাদের প্রযুক্তি উদ্ভাবনের জন্য কাজ করছে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন (কেজিএফ)। পরিমাণমতো সার প্রয়োগের মাধ্যমে প্রতিবছর জুমচাষ করতে জুমিয়াদের উৎসাহিত করছে প্রতিষ্ঠানটি। এরই অংশ হিসেবে শনিবার সকালে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের আটমাইল এবং দীঘিনালা উপজেলার নয়মাইল এলাকায় মাঠ দিবস পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন কেজিএফ-এর টেকসই ভূমি ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের পাহাড়ি কৃষি বিভাগ-২ এর প্রধান ও শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. অলোক কুমার পাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সাইফুল আলম, খাগড়াছড়ি কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক মর্তুজা আলী।

তাঁরা পাহাড়ি জমি খালি না রেখে শুধু সার প্রয়োগের মাধ্যমে একই জমিতে প্রতিবছর জুমফসল উৎপাদন করার পরামর্শ দিয়েছেন।

কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন (কেজিএফ) ২০১৩ সাল থেকে তিন পার্বত্য জেলায় জুমিয়াদের কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে আসছে। প্রচলিতভাবে পাহাড়ের একই জমিতে প্রতিবছর জুমচাষ হয় না। পাহাড়িরা ২/৪ বছর বিরতি দিয়ে জুমফসল চাষ করে থাকেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা