kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মহালছড়িতে সমাহিত

মংছেনচিংকে চোখের জলে শেষ বিদায়

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মংছেনচিংকে চোখের জলে শেষ বিদায়

একুশে পদকপ্রাপ্ত গবেষক মংছেনচিং মংছিনকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বিশিষ্টজন, কবি, সাহিত্যিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ সর্বস্তরের মানুষ। তিনি গত শনিবার সকালে রাঙামাটিতে মারা যান। ওই দিন বিকেলে তাঁর মরদেহ রাঙামাটি থেকে খাগড়াছড়ির মহালছড়ির বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারে ভুগছিলেন তিনি।

রবিবার দুপুরে মহালছড়ির প্রজ্ঞা বিদর্শন বিহার সংলগ্ন গ্রামীণ শ্মশানে তাঁকে সমাহিত করা হয়। সকল ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান সম্পন্ন করে তাঁর অন্তিম ইচ্ছা অনুযায়ী তাঁকে সমাহিত করা হয়েছে। পাহাড়ি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীসমূহের সাহিত্য, কৃষ্টি-সংস্কৃতি নিয়ে গবেষণাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ২০১৬ সালে তাঁকে একুশে পদক দেয় সরকার। পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে আর কেউ ওই পদক পাননি। তাঁর স্ত্রী কবি শোভা রানী ত্রিপুরাও রোকেয়া পদক পান।

মংছেনচিংয়ের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা, মহালছড়ি সেনাজোনের অধিনায়ক লে. কর্নেল মেহেদি হাসান, পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য জুয়েল চাকমাসহ বিশিষ্ট শ্রেণি-পেশার মানুষ। এ ছাড়া শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি, খাগড়াছড়ি সেনানিবাসের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ফাইজুর রহমান, পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীর পক্ষ থেকে প্রয়াতের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা