kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মেঘনায় ইলিশ লুট, আহত ৪

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেঘনা নদীতে জেলেদের কাছ থেকে কেনা ৩০ মণ ইলিশ লুট করেছে একদল ডাকাত। এ সময় এদের হামলায় চার জেলে আহত হয়েছেন। তাঁদেরকে চরজব্বর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ একটি নৌকা জব্দ করলেও মাছের খোঁজ পায়নি।

ডাকাতদের হামলায় আহত জাফর মাঝি জানান, তিনিসহ চারজন মাছ ব্যবসায়ী মেঘনা নদীর মোহাম্মদপুর পূর্ব সীমান্তে জেলেদের কাছ থেকে মাছ কিনে এনে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে থাকেন। তাঁদের নৌকাটি সন্দ্বীপের দাদন ব্যবসায়ীর। মাছের মওসুমে মাঝে মধ্যে মেঘনা নদীর জলদস্যুরা তাঁদের মাছ লুট করে নিয়ে যায়। তাঁরা তাই সতর্কভাবে চলাফেরা করে নদীতে ক্লোজার নৌকা দিয়ে জেলেদের কাছ থেকে মাছ কিনেন। রবিবার রাতে তাঁরা নদীতে বিভিন্ন জেলের নৌকা থেকে ৩০ মণ ইলিশ কেনেন। রাত তিনটার দিকে তাঁরা মাছ নিয়ে সন্দ্বীপ ঘাটে পৌঁছার আগে একদল ডাকাত তাঁদের নৌকাকে ধাওয়া করে ধরে ফেলে। ডাকাতরা নৌকায় উঠে তাঁর সঙ্গে থাকা রহমত উল্লাহ মেস্ত্ররী (৩৪), সোহাগ (২৫) ও শাহজাহানকে (২৯) কুপিয়ে ও মারধর করে সব ইলিশ লুট করে নিয়ে যায়। পরে নদীতে থাকা অন্য জেলেরা তাঁদের উদ্ধার করে চারজনকে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বর হাসপাতালে ভর্তি করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চরজব্বর থানার ওসি সাহেদ উদ্দিন জানান, এ বিষয়ে তাঁর কাছে কেউ অভিযোগ করেননি।

সন্দ্বীপ থানার ওসি শরিফুল আলম জানান, ঘটনাটি চরজব্বর থানাকে জানানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা