kalerkantho

পটিয়ায় ছিনতাইয়ের শিকার নারী

নগরে ৫ কিশোরসহ গ্রেপ্তার ৬

নিজস্ব প্রতিবেদক ও পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৫ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোবাইল ছিনতাইয়ের অভিযোগে খুলশী থানা পুলিশ পাঁচ কিশোরসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে। শনিবার রাতে নগরের খুলশী ও বায়েজিদ বোস্তামী থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হল ইয়াসিন মোল্লা (২০), আব্দুর রহিম (১৮), আমিরুল ইসলাম (১৮), রিপন (১৮), জীবন হোসেন ও সাগর হোসেন (১৮)।

খুলশী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রণব চৌধুরী জানান, গত শনিবার বাংলাদেশ কোরিয়া টেকনিক্যাল সেন্টারের নবম শ্রেণির ছাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার সময় পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট খেলার মাঠের সামনে তার গতিরোধ করে ইয়াছিনসহ অন্যরা। পরে ওই ছাত্রকে পাশের ঝুপড়ি স্থানে নিয়ে মারধর করে এবং ছুরির ভয় দেখিয়ে মোবাইল ফোন ছিনতাই করে নেয়। এ সময় ওই ছাত্রের চিৎকার শুনে টহল পুলিশ ও আশপাশের লোকজন এগিয়ে ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে ইয়াছিন, রহিম ও আমিরুলকে গ্রেপ্তার করতে সমর্থ হয় পুলিশ। এর পর তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বায়েজিদ ও খুলশী থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে রিপন, জীবন ও সাগরকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযানের সময় ছিনতাইকৃত মোবাইল ফোনসেট এবং ছিনতাই ঘটনায় ব্যবহৃত ছুরি জব্দ করা হয়েছে। এই ঘটনায় দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করে আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

পটিয়া : এক নারীর ৫০ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। রবিবার সকাল ১১টার দিকে ন্যাশনাল ব্যাংক পটিয়া শাখার নিচ থেকে ফাতেমা বেগম (৫০) নামে ওই নারীর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়। তিনি উপজেলার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নের পাঁচরিয়া এলাকার আবদুল কুদ্দুসের স্ত্রী।

জানা যায়, ওমান প্রবাসীর মা ফাতেমা বেগম রবিবার সকালে ন্যাশনাল ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করতে যান। সকালে টাকা উত্তোলন করে ব্যাংক থেকে নিচে নামলে এক যুবক তাঁর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

পটিয়া থানার সেকেন্ড অফিসার নাদিম মাহমুদ রবিবার বিকেলে বলেন, ‘ওই নারীর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার বিষয়ে এখনো থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। তবে ঘটনাস্থল থেকে কিছু ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে।’

 

মন্তব্য