kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

গ্রেনেড হামলা মামলার রায়

শঙ্কা থেকে স্বস্তিতে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শঙ্কা থেকে স্বস্তিতে পুলিশ

চট্টগ্রাম নগর বিএনপি কার্যালয় গতকাল দুপুরে। ছবি : কালের কণ্ঠ

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণার পর চট্টগ্রামে রাজপথে ছিল না বিএনপি। কোনো কর্মসূচি পালন করতে দেখা যায়নি নেতাকর্মীদের। ফলে নির্বিঘ্নে ও শান্তিপূর্ণভাবেই বুধবার দিনটি পার করল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

চট্টগ্রাম নগর ও জেলার ৩২ থানা এলাকার কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

নগর পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রায় ঘোষণার পর বিএনপিসহ কয়েকটি রাজনৈতিক দল নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালাতে পারে-এমন আশঙ্কা থেকে নগরীতে বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছিল। গুরুত্বপূর্ণ সড়ক মোড়ে সকাল থেকেই বিপুল পরিমাণ পুলিশ দায়িত্বপালন শুরু করে। কিন্তু সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তবে বিএনপির কিছু নেতাকর্মী দলীয় কার্যালয়ের সামনে জড়ো হয়েছিল। সেখানেও পুলিশ নিরাপত্তায় ছিল।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন, জেলার সব থানা এলাকায় পর্যাপ্ত নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছিল। কিন্তু দুপুরে রায় ঘোষণার পর কোনো থানা এলাকায় কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। শান্তিপূর্ণভাবেই দিন শেষ হয়েছে। তিনি বলেন, ‘নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নিয়েছিল। সন্ধ্যায় বাড়তি ফোর্স ব্যারাকে ফিরিয়ে নেওয়া হয়। তবে নিয়মিত টহল অব্যাহত থাকে।’

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নগর পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান, জেলা পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা ও র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মিফতা উদ্দিন আহমেদ বলেছিলেন, একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করে পুলিশ।

তবে বুধবার রায়ের পর বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো ধরনের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালিত না হওয়ায় পুলিশও সাধারণ দায়িত্বপালনের মধ্য দিয়ে দিন শেষ করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা