kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

চেক জালিয়াতি

ব্যাংক কর্মকর্তাসহ দুজনের জেল

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চেক জালিয়াতি মামলায় সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তাসহ দুজনকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে উভয়কে ৯ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নোয়াখালীর স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক সফিউল ইসলাম এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন সোনালী ব্যাংক নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী শাখার কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন ও সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের এমএলএসএস নূর হোসেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালে সোনাইমুড়ী উপজেলার চেয়ারম্যান, মেম্বার ও গ্রাম পুলিশের ভাতার সরকারি অংশের মোট ৯ লাখ ৪ হাজার ৪৪৫ টাকার দুটি চেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নাম ভাঙিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে গ্রহণ করেন নূর হোসেন। পরবর্তীতে চেক দুটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে জমা না দিয়ে নূর হোসেন সোনালী ব্যাংক সোনাইমুড়ী শাখার কর্মকর্তা আলমগীর হোসেনের সহযোগিতায় ভুয়া ও জাল হিসাব খুলে চেকগুলো নগদায়ন করে সব টাকা আত্মসাৎ করেন।

এ ঘটনায় তৎকালীন সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মো. আব্দুর রহমান বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় দুদককে।

তদন্ত শেষে দুদক নোয়াখালীর উপ-পরিচালক সৈয়দ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মঙ্গলবার দুপুরে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আসামিদের উপস্থিতিতে আদালত উভয়কে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড এবং একই সাথে ৯ লাখ টাকা করে মোট ১৮ লাখ টাকা জরিমানা করেন।

দুদক নোয়াখালীর সহকারী পরিচালক মো. মাশিউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা