kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নোয়াখালীতে বেদেপল্লীতে হামলা

ঘটনাস্থল ঘুরে দেখল তদন্ত কমিটি

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘটনাস্থল ঘুরে দেখল তদন্ত কমিটি

নোয়াখালী সদরে বেদেপল্লীর বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটিতে আছেন আহ্বায়ক-অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. কামাল হোসেন এবং সদস্য নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী অফিসার আরিফুল ইসলাম সর্দার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মো. শাহজাহান শেখ। তাঁরা সোমবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শনকালে কমিটির সদস্যরা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, এলাকাবাসী ও হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত বেদেপল্লীর লোকজনের সাথে কথা বলেন। এ সময় তাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর দেখেন।

কমিটির সদস্যরা আগামী ৩ থেকে ৭ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসক তন্ময় দাশের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবেন বলে জানিয়েছে তদন্ত কমিটি।

উল্লেখ্য, গত ৭ সেপ্টেম্বর বেদেপল্লীর এক কিশোরী স্থানীয় একটি দোকানে আইসক্রিম কিনতে গেলে দোকানি তাকে অশালীন মন্তব্য করেন।

এ নিয়ে বেদেপল্লীর বাসিন্দাদের সাথে দোকানি ও স্থানীয় লোকজনের বাগিবতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে তাঁদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় তারেক আজিজ (১৭) নামে এক কিশোর দোকানের রান্নার গরম তেলের কড়াইয়ে পড়ে ঝলসে যায়। সে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

তারেক আজিজের মৃত্যুর গুজবে গত ১০ সেপ্টেম্বর বেদেপল্লীতে কয়েক শ এলাকাবাসী হামলা করে ব্যাপক ভাঙচুর, লুটপাট ও বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বেদেদের পক্ষে জাকের সর্দার বাদী হয়ে ২৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে এবং ঢাকা মেডিক্যালে চিকিৎসাধীন তারেক আজিজের বাবা দেলওয়ার হোসেন ১৩ জনের নাম উল্লেখসহ আরো অজ্ঞাত কয়েকজনের বিরুদ্ধে সুধারাম মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় বড় ধরনের সংঘাত এড়াতে এলাকায় অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা