kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জশনে জুলুসে জনস্রোত

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম ও খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি   

৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জশনে জুলুসে জনস্রোত

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উপলক্ষে শনিবার নগরীতে জশনে জুলুস বের করে আনজুমান ট্রাস্ট। ছবি : কালের কণ্ঠ

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উপলক্ষে লাখো মুসল্লির অংশগ্রহণে চট্টগ্রামে এবারও জশনে জুলুস বের হয়েছে। আল্লামা সৈয়দ মুহাম্মদ তাহের শাহ এতে নেতৃত্ব দেন। জুলুসে আরও ছিলেন শাহজাদা সৈয়দ মুহাম্মদ কাসেম শাহ ও সৈয়দ মুহাম্মদ হামেদ শাহ।

শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনায় নগরীর ষোলশহর জামেয়া আহম্মদিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণ থেকে জুলুস বের হয়। এটি প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার জামেয়া ময়দানে গিয়ে মাহফিলে মিলিত হয়। জুলুসে অংশ নিতে শুক্রবার রাত থেকে চট্টগ্রাম ও আশপাশের জেলাসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তের লাখ লাখ সুন্নি মুসলমান চট্টগ্রামে আসতে শুরু করেন। জোহরের নামাজের পর আল্লামা তাহের শাহর আখেরি মুনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয় জশনে জুলুসের আয়োজন।

জামেয়া ময়দানে মাহফিলে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) ওপর বিশেষ আলোচনায় অংশ নেন আল্লামা তাহের শাহর দুই ছেলে সৈয়দ মো. কাশেম শাহ ও সৈয়দ মো. হামেদ শাহ।

জশনে জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উদযাপনে সব সময় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সহযোগিতা করার কথা উল্লেখ করে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, ‘এ জুলুসকে আরও বর্ণাঢ্য করতে আগামীতেও সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।’

এতে অন্যান্যের মধ্যে পিএইচপি পরিবারের চেয়ারম্যান সুফি মো. মিজানুর রহমান, আনজুমানে রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মো. মহসিন, সেক্রেটারি জেনারেল মো. আনোয়ার হোসেন, এডিশনাল জেনারেল সেক্রেটারি মো. শামসুদ্দিন, মো, সিরাজুল হক, এস এম গিয়াস উদ্দিন শাকের, প্রেস অ্যান্ড পাবলিকেশান সেক্রেটারি অধ্যাপক কাজী শামসুর রহমান, গাউসিয়া কমিটির চেয়ারম্যান পেয়ার মোহাম্মদ, জামেয়া আহাম্মদিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসার চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. দিদারুল ইসলাম ও অধ্যক্ষ মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ অছিয়র রহমান বক্তব্য দেন।

খাগড়াছড়ি : জশনে জুলুসসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়িতে পবিত্র ঈদে মিলাদুনবী (দ.) উদযাপিত হয়েছে। আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত খাগড়াছড়ি জেলা শাখার উদ্যোগে সকালে খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় ঈদগা মাঠ থেকে জশনে জুলুস বের হয়।

এতে আশেকানে মাইজভাণ্ডারী অ্যাসোসিয়েশনের জুলুস ভিন্নমাত্র যোগ করে। এছাড়া বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা, গাউসিয়া কমিটিসহ বেশ কয়েকটি সংগঠন ব্যানার নিয়ে জুলুসে যোগ দেয়। এতে জেলা প্রশাসক মো. রাশেদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার আলী আহম্মদ খান, পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম ও আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের জেলা সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আকতার উদ্দিন মামুন প্রমুখ অংশ নেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা