kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

নতুন রূপে বাণী

আগের চার ছবিতে তাঁর অভিনয়ের খুব বেশি জায়গা ছিল না। তবে আগামীকাল মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ‘চণ্ডীগড় করে আশিকি’ ছবিতে ট্রান্সজেন্ডার নারীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাণী কাপুর, যা নিয়ে এর মধ্যেই চলছে নানা তর্ক-বিতর্ক। অভিনেত্রীর নতুন শুরু নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নতুন রূপে বাণী

২০১৩ সালে অভিষেক। তাঁর কাছাকাছি সময়ে অভিষেক হওয়া অনেকেই গোটা দশেক ছবি করে ফেলেছেন। কিন্তু বাণী কাপুর আটকে মোটে চারটি ছবিতে! যার একটি আবার মুক্তি পেয়েছে এই আগস্টে (বেল বটম)। এত কম ছবি করার বড় কারণ ছিল প্রযোজনা সংস্থা যশরাজ ফিল্মের সঙ্গে চুক্তি।

বিজ্ঞাপন

গেল বছর চুক্তি শেষে অন্য প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে কাজ শুরু করেন। তখনই জানিয়েছিলেন, সামনের দুই বছরে আরো গোটা চারেক ছবি আসবে। ‘বেল বটম’-এর পরেরটি হলো ‘চণ্ডীগড় করে আশিকি’। কম ছবি করা ছাড়াও বাণীর বিরুদ্ধে আরেকটি অভিযোগ, সিনেমায় তাঁর করা চরিত্রগুলো অনেকটা ‘আলংকারিক’, যেখানে অভিনয়ের তেমন সুযোগ থাকে না। সেই অভিযোগের জবাব দিতেই যেন একেবারে ট্রান্সজেন্ডার নারীর চরিত্রে হাজির! তবে ঝামেলা এড়াতে এ প্রসঙ্গে মুখে যেন কুলুপ এঁটেছেন ছবিসংশ্লিষ্ট সবাই। ট্রেলারেও খোলাসা করা হয়নি ছবির বিষয়। তবে কিছুটা আঁচ পাওয়া গেছে ভারতের সেন্সর বোর্ডের বিবৃতির পর। ছবিটি দেখে বাণী কাপুর ও আয়ুষ্মান খুরানার অন্তরঙ্গ দৃশ্য কিছুটা ছোট করার পাশাপাশি ট্রান্সজেন্ডার সম্প্রদায়ের জন্য বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ বার্তা প্রচারের নির্দেশ দিয়েছে সেন্সর বোর্ড। ‘ছবিতে আমার চরিত্র নিয়ে কিছুই বলতে চাই না। ১০ ডিসেম্বর মুক্তি পাক, মানুষ দেখুক। এরপর বাকি কথা হবে। গেল বছর কভিডে টানা ঘরবন্দি থেকে যখন বিষণ্নতায় ভুগছিলাম, তখন এ ছবির প্রস্তাব পাওয়াটা আমার কাছে ছিল নতুন সূর্যোদয়ের মতো। চিত্রনাট্য পড়ামাত্রই রাজি হয়েছিলাম। এ ছবিতে সুযোগ দেওয়ার জন্য পরিচালক অভিষেক কাপুর ছাড়াও আয়ুষ্মানকে বিশেষ ধন্যবাদ দিতে চাই। কারণ সে-ই আমার নাম প্রস্তাব করে। ’ ছবিতে নাচের শিক্ষকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাণী, আয়ুষ্মান করেছেন বডি বিল্ডারের চরিত্র। বাণী যতই চুপ থাকতে চান, ছবি মুক্তির আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিদিনই তাঁর অভিনীত চরিত্র নিয়ে নানা কথা হচ্ছে। তাঁদের সম্প্রদায়কে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হবে, এই আশঙ্কা এর মধ্যেই ব্যক্ত করেছেন ভারতের অনেক ট্রান্সজেন্ডার। বাণীর সঙ্গে ছবির পরিচালক অভিষেক কাপুরও চুপ। গেল কয়েক বছরে ‘পদ্মাবৎ’ থেকে ‘তাণ্ডব’—নানা ছবি ও সিরিজ নিয়ে বিতর্ক হয়েছে। সে জন্য ঝামেলা এড়াতে ধীরে চলো নীতি নিয়েছেন তাঁরা। ছবির প্রচারের সময় বাণী কথা দিয়েছেন এই ছবিতে যেভাবে নিজেকে ভেঙেছেন, পরের ছবিগুলোতেও সেই ধারা অব্যাহত রাখবেন। এরপর রণবির কাপুরের বিপরীতে ‘শমশেরা’ ছবিতে দেখা যাবে তাঁকে।

বাণীর মতো এই ছবিতে অভিনেতা আয়ুষ্মানও নিজেকে ভেঙেছেন। প্রথমবারের মতো ওজন বাড়িয়েছেন। ‘প্রথম লকডাউনের সময়টা পুরো কাজে লাগিয়েছি। ছয় মাস লেগেছে চরিত্রের জন্য নিজেকে তৈরি করতে। তখন আট ঘণ্টা ঘুমাতাম আর তিন-চার ঘণ্টা ব্যায়াম করতাম,’ বলেন অভিনেতা। ছবিতে নিজের অভিনয়, বাণীকে নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া ছাড়াও আরো একটি অবদান আছে আয়ুষ্মান পরিবারের। ছবির নাম ‘চণ্ডীগড় করে আশিকি’ প্রস্তাব করেন অভিনেতার স্ত্রী চিত্রনাট্যকার-পরিচালক তাহিরা কাশ্যপ।



সাতদিনের সেরা