kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

দায়িত্ব নিয়ে বলছি, এটা ভালো ছবি

ফজলুর রহমান বাবু অভিনেতা

২৫ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দায়িত্ব নিয়ে বলছি, এটা ভালো ছবি

ছবিটির অন্যতম একটা পার্ট জলবায়ু। এটাই সব নয়। দেশের নিম্নাঞ্চলের মানুষ কিভাবে জলবায়ু পরিবর্তনের সরাসরি শিকার হচ্ছে—এ বিষয়টা গুরুত্ব দিয়ে দেখানো হয়েছে। এটা যে খুব ইনটেনশনালি করা হয়েছে, তা-ও বলব না। গল্পের ভেতর দিয়েই সব বলা হয়েছে। জেলেদের জীবন-জীবিকার সংগ্রামের মধ্য দিয়ে উঠে এসেছে এসব।

শুটিং হয়েছে কুয়াকাটা থেকে আরো অনেক ভেতরে দক্ষিণাঞ্চলের একেবারে শেষ প্রান্তে। বেশ কষ্টসাধ্য ছিল। যখন শুটিং করেছি, বাইরের পৃথিবী থেকে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন ছিলাম। সমুদ্রের বাতাস, বৃষ্টি—এসব বড় একটা প্রতিবন্ধকতা হয়ে ওঠেনি। আমাদের সঙ্গে অনেক বিদেশি ছিল। ওদের একদম রুটের কালচারও জানতে পেরেছি।

পরিচালক ভীষণ সৎ ছিলেন গল্পের বেলায়। রংচং দিয়ে বাণিজ্যিক ফায়দা করার মানসিকতা তাঁর মধ্যে কখনোই দেখিনি। পরিচালক এই সমাজটারই গল্প বলতে চেয়েছেন। সুমিতের বিশ্বাস ছিল, ছবিটা মানুষ আগ্রহ নিয়ে দেখবে। আমি সিনেমায় চেয়ারম্যানের ভূমিকায় অভিনয় করেছি। চেয়ারম্যান বলতে ওই এলাকার প্রভাবশালী মানুষের চরিত্র। চরিত্রটা নেগেটিভ নাকি পজিটিভ, এটা বলতে পারব না। চরিত্রটা আসলে ধূসর। একটি চমৎকার আবহে ছবিটি করার সুযোগ হয়েছে।

আমি বিশ্বাস করি, সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে করলে যেকোনো কাজ মানসম্মত হয়। ‘নোনা জলের কাব্য’ আমাদের দেশের চলচ্চিত্রে নতুন মাত্রা যোগ করবে, এটা বিশ্বাস করি। দর্শকদের অনুরোধ করব, হলে এসে ছবিটি দেখবেন। শুটিং করার সময়ই সাধারণত আমরা বুঝি যে প্রজেক্টটা কী হতে যাচ্ছে। সে ক্ষেত্রে দায়িত্ব নিয়েই বলব, একটা ভালো ছবি হয়েছে।



সাতদিনের সেরা