kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

এই রবি সেই রবি নন

বছর ১২ আগে শুরু করা গড়পড়তা এক অভিনেত্রীই এখন বিশ্বের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়াদের একজন। অভিনয়ের বাইরে প্রযোজনাতেও চমকে দিয়েছেন মার্গট রবি। আগামীকাল ‘দ্য সুইসাইড স্কোয়াড’ মুক্তির আগে অভিনেত্রীকে নিয়ে লিখেছেন লতিফুল হক

৫ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



এই রবি সেই রবি নন

মার্গট রবি

মার্টিন স্করসেজির ‘দ্য উলফ অব ওয়াল স্ট্রিট’-এ সুযোগ না পেলে মার্গট রবির ক্যারিয়ার অন্য রকম হতেই পারত। এর আগে বছর চারেক কাজ করেও মনে রাখার মতো কিছু করতে পারেননি। কিন্তু ২০১৩ সালের এই বহুল প্রশংসিত ছবি করেই রাতারাতি আলোচনায় আসেন। তবে এক ছবি দিয়েই জায়গা স্থায়ী হবে না, সেটা ভালোই বুঝেছিলেন। তাই মন-প্রাণ ঢেলে অভিনয় করেছিলেন সুপারহিরো ছবি ‘সুইসাইড স্কোয়াড’-এ। তখন মার্ভেলের দাপটে ডিসির অবস্থা ছিল ভীষণ কোণঠাসা। তাই ২০১৬ সালে ডিসির সঙ্গে ‘সুইসাইড স্কোয়াড’ ব্যর্থ হলে ক্যারিয়ারই বিপদগ্রস্ত হওয়ার শঙ্কা ছিল। শেষ পর্যন্ত বাজিটা জিতেছিলেন রবি। এই ছবির সাফল্যের পর অস্ট্রেলিয়ান অভিনেত্রীর ওপর আস্থা রাখতে সাহস করেন প্রযোজকরা। সেটা যে মোটেও ভুল ছিল না পরের বছরই তা আবারও প্রমাণ করেন রবি, ‘আই, টনিয়া’ দিয়ে। মার্কিন ফিগার স্টেকার টনিয়া হার্ডিংয়ের জীবনের কিছু ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ছবিটিতে অভিনয় করে তাক লাগিয়ে দেন রবি। সুপারহিরোর দুনিয়া থেকে বাস্তবের চরিত্রে দারুণ পারফরম্যান্স রবির বহুমাত্রিক অভিনয় দক্ষতারই প্রমাণ। এ ছবির জন্য অস্কার, বাফটা ও গোল্ডেন গ্লোবে মনোনীত হয়েছিলেন। এরপর ‘ম্যারি কুইন অব স্কটস’, ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন হলিউড’ ও ‘বম্বশেল’—এই তিন ছবি রবিকে নিয়ে এলো হলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীদের কাতারে।

অভিনয়ের সঙ্গে প্রযোজনাও বেশ আগে থেকেই শুরু করেছেন রবি। ২০১৪ সালে ব্রিটিশ প্রযোজক টম অ্যাকার্লির সঙ্গে শুরু করেছেন প্রযোজনা সংস্থা লাকিচ্যাপ এন্টারটেইনমেন্ট। দুই বছর পরই রবি ও টম বিয়ে করেন। ‘আই, টনিয়া’ দিয়ে শুরুর পর আরো চারটি ছবির প্রযোজনা করেছেন স্বামী-স্ত্রী। গেল বছরের বহুল প্রশংসিত ‘প্রমিজিং ইয়ং ওম্যান’-এর অন্যতম প্রযোজক রবি-টমের সংস্থা। এ ছবিতে অবশ্য রবি অভিনয় করেননি। এর মধ্যেই কম্পানিটির বিভিন্ন চলচ্চিত্র আট অস্কার ও ১১টি বাফটা মনোনয়ন পেয়েছে। আপাতত নিজের অভিনয়ের চেয়ে প্রযোজনাতেই মন রবির, ‘অনেক অনেক গল্প বলার আছে। সব প্রজেক্টে তো নিজে অভিনয় করা সম্ভব নয়। আপাতত আমরা টিভি ও বড় পর্দার জন্য নানা স্বাদের কনটেন্ট তৈরি করতে চাই।’ প্রযোজনা সংস্থার পরের ছবি ‘ব্যাবিলন’। ড্যামিয়েন শ্যাজেলের পিরিয়ড ড্রামায় আছেন রবি নিজেও। নাম ঠিক না হওয়া আরেকটি ছবির শুটিং শেষ হয়েছে। লকডাউনের কারণে কয়েকটি প্রজেক্ট পিছিয়েছে। এ নিয়ে মোটেও হতাশ নন রবি, ‘মহামারির আগে আমি যেন পাগলা ঘোড়ার মতো ছুটছিলাম, গেল দেড় বছরের গৃহবন্দি জীবন আমাকে শান্ত করেছে। নিজের ভাবনাগুলো গুছিয়ে নিতে পেরেছি।’

গেল জুলাইতে ৩১ বছরে পা দেওয়া রবির নতুন ছবি ‘দ্য সুইসাইড স্কোয়াড’ মুক্তি পাবে আগামীকাল। পাঁচ বছর আগে মুক্তি পাওয়া ‘সুইসাইড স্কোয়াড’-এর সিক্যুয়াল এটি। ছবিতে তৃতীয়বারের মতো ডক্টর হারলিন কুইনজেল চরিত্রে দেখা যাবে রবিকে। একই চরিত্রে তিনি ছিলেন গেল বছর মুক্তি পাওয়া ‘বার্ডস অব প্রে’তেও। তবে সেটা ‘সুইসাইড স্কোয়াড’-এর সিক্যুয়াল নয়, স্পিন-অফ ছিল। ছবিতে রবি ছাড়াও আছেন ইদ্রিস এলবা, সিলভেস্টার স্ট্যালোন, ভায়োলা ডেভিস ও রেসলার থেকে অভিনেতা বনে যাওয়া জন সিনা। এ ছবির আগেই হার্লি কুইন চরিত্রটি নিয়ে উচ্ছ্বাস জানিয়েছিলেন রবি, বলেছিলেন যত দিন সম্ভব চরিত্রটি করতে চান। অবশ্য নানা অনিশ্চয়তা পাড়ি দিতে হয়েছে ‘দ্য সুইসাইড স্কোয়াড’কে। শুরুতে গোল বাধে পরিচালক নিয়ে। প্রথম পরিচালক হিসেবে শোনা যায় গাই রিচির নাম, পরে মেল গিবসনের নাম। শেষ পর্যন্ত পরিচালক অবশ্য চূড়ান্ত হন জেমস গান। এরপর ঝামেলা হয় উইল স্মিথকে নিয়ে। শিডিউল জটিলতায় তিনি সরে দাঁড়ান। ছবিতে যুক্ত হন এলবা। তখন মনে করা হয়েছিল স্মিথ অভিনীত ডেডশট চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। পরে জানা যায় এলবার জন্য ব্লাডস্পোর্ট নামের আরেকটি চরিত্র লেখা হয়েছে। ফলে ভবিষ্যতে এই ফ্র্যাঞ্চাইজিতে স্মিথের ফিরতে আর বাধা রইল না।



সাতদিনের সেরা