kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৮। ৫ আগস্ট ২০২১। ২৫ জিলহজ ১৪৪২

ছবির চেয়েও বেশি কিছু

২০ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ছবির চেয়েও বেশি কিছু

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

দীর্ঘ বিরতির পর ফের অ্যাকশন অবতারে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। ‘দোজ হু উইশ মি ডেড’ অবশ্য বক্স অফিসে ততটা ভালো করতে পারেনি। কিন্তু অভিনেত্রীর কাছে এটি স্রেফ ছবিই নয়, ছবির চেয়েও বেশি কিছু। লিখেছেন লতিফুল হক

২০১৯ সালে ‘দোজ হু উইশ মি ডেড’-এ অভিনয়ের চুক্তি করে যেন একটা অবলম্বন খুঁজে পেলেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। ছবিতে তিনি হ্যানা ফেবার নামের এক অগ্নিনির্বাপককর্মী। চরিত্রটির বিরাট কোনো বিশেষত্ব নেই। তবে যা আছে সেটা অভিনেত্রীর কাছে বিশেষ কিছু। ‘বিচ্ছেদ, সংসার, সন্তান সামলানো মিলিয়ে তখন বিপর্যস্ত ছিলাম। এই সময়ে ছবিটি আমার আশ্রয় হয়ে আসে। চিত্রনাট্য পড়ে আবিষ্কার করি হ্যানা আসলে আমার মতোই একা, ভাঙা হৃদয়ের একজন’, বললেন জোলি। হ্যানার চরিত্রে অভিনয় তাঁর ব্যক্তিগত শোক কাটিয়ে উঠতে যে সাহায্য করেছে, সেটাও বলেছেন অভিনেত্রী, ‘এই চরিত্রে নিজেকে সঁপে দেওয়া ছিল দারুণ সিদ্ধান্ত। ব্যক্তিগত দুঃখ থেকে বেরিয়ে আসতে নিজের মতো করে চেষ্টা করছিলাম। চরিত্রটা আমাকে সেরে উঠতে সাহায্য করেছে।’

মহামারির কারণে যুক্তরাষ্ট্রের বক্স অফিসে মন্দাভাব। চলচ্চিত্র-বাণিজ্য বিশ্লেষকদের আশা ছিল দীর্ঘ বিরতির পর ‘টুম রাইডার’ অভিনেত্রীকে অ্যাকশন চরিত্রে দেখে হলে ফিরবে দর্শক। কিন্তু তাঁদের প্রত্যাশা পুরোপুরি পূরণ হয়নি। অবশ্য এখন যুক্তরাষ্ট্রের ৬৫ শতাংশ প্রেক্ষাগৃহই বন্ধ। তাই ছবিটি যে ব্যাপক ব্যবসাসফল হবে না সেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন অনেক বিশ্লেষকই। ১৪ মে ছবিটি প্রেক্ষাগৃহের সঙ্গে মুক্তি পেয়েছে ‘এইচবিও ম্যাক্স’ অ্যাপেও। ছবিটিকে ‘গড়পড়তা’ বলে রায় দিয়েছেন সমালোচকরা। তবে জোলির কাছে এটা ‘অ্যাকশন থ্রিলার’ হিসেবে বেশ ভালো মানের ছবি।

‘দোজ হু উইশ মি ডেড’ বানিয়েছেন টেইলর শেরিডান। অ্যাকশন-থ্রিলার নির্মাতা হিসেবে বেশ নাম তাঁর। জনপ্রিয় ‘সিকারিও’ সিরিজের দুই ছবির চিত্রনাট্যকার তিনি। ২০১৭ সালে বানিয়েছিলেন ‘উইন্ড রিভার’।

ছবির প্রধান চরিত্র হ্যানাকে যেতে হয় ভীষণ মানসিক বিপর্যয়ের মধ্য দিয়ে। কারণ, বনে আগুন নেভানোর সময় তাঁর চোখের সামনে তিন তরুণ মারা যায়। এর পর থেকেই ভেঙে পড়ে সে। হাওয়া বদলানোর জন্য তাকে বদলি করা হয় অন্যত্র। একদিন বনে রক্তাক্ত অবস্থায় খুঁজে পায় অচেনা কিশোর কনরকে। তাকে নিরাপদে পৌঁছে দিতে চায় হ্যানা, কিন্তু সে জানে না কারা লেগেছে কনরের পেছনে!

ছবিতে জোলি ছাড়াও আছেন নিকোলাস হল্ট, অ্যাডাম গিলেন, জ্যাক ওয়েবারের মতো অভিনেতারা। একটি চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল নিকোলাস কেজেরও। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তিনি সরে যান। 

‘দোজ হু উইশ মি ডেড’ করার পর জোলি বুঝেছেন অভিনয় করলেই তিনি ভালো থাকতে পারেন। তাই ঠিক করেছেন পর্দায় নিয়মিত হবেন। ছবি মুক্তির আগে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে বলেন, ‘নানা ধরনের চরিত্রে কাজ করতে মুখিয়ে আছি আমি।’ সামনে অভিনেত্রীকে দেখা যাবে ‘ইটারনালস’-এ। মার্ভেলের এই ছবিতে প্রথমবারের মতো সুপার হিরো চরিত্র করেছেন তিনি। ডিসেম্বরেই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা।



সাতদিনের সেরা