kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

ঈদে কী দেখবেন তাঁরা

করোনার চোখ রাঙানি না থাকলে ঈদের ছবি নিয়ে তাঁরা হাজির হতেন বড় পর্দায়। হলে গিয়ে ছবি দেখতেন। সেটা যখন হচ্ছে না, ঈদের ছুটিতে কী দেখে বিনোদনের চাহিদা মেটাবেন এই নায়িকারা?

৬ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈদে কী দেখবেন তাঁরা

ছবিতে (বাঁ থেকে) পূজা চেরী, বিদ্যা সিনহা মিম ও নুসরাত ফারিয়া

রাজ্জাক-উত্তম কুমারের ক্লাসিক ও সালমানের ‘রাধে’

বিদ্যা সিনহা মিম

নেটফিক্স, ডিজনি হটস্টার, জি-ফাইভ, হইচইসহ আরো কয়েকটি প্ল্যাটফর্মের গ্রাহক আমি। এসব প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাওয়া সিনেমা-সিরিজ দেখি। গত এক বছরে বিশেষ করে নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়া বেশির ভাগ সিনেমা ও সিরিজ দেখা হয়েছে। ঈদের ছুটিতে এবার ইচ্ছে আছে কিছু বাংলা ক্লাসিক ছবি দেখব। রাজ্জাক ও উত্তম কুমারের অন্ধভক্ত আমার বাবা। বাবার মুখে তাঁদের অনেক ছবির নাম শুনি। সেগুলো দেখব। আরেকটি ছবির জন্য মুখিয়ে আছি, সালমান খানের ‘রাধে’। ট্রেলার দেখেই মুগ্ধ হয়েছি। আমি বাণিজ্যিক ছবি পছন্দ করি। গান থাকবে, মারপিট থাকবে, কমেডি থাকবে—এর বাইরে কি সিনেমা কল্পনা করা যায়! লকডাউন না থাকলে তো ভারতেই চলে যেতাম, বড় পর্দায় ছবিটি দেখার জন্য।

 

দ্য ফ্যামিলি ম্যান ও মেড ইন হ্যাভেন

নুসরাত ফারিয়া

বাসায় থাকলে সিনেমা বা ওয়েব সিরিজ দেখি নিয়মিতই। যদি আমাদের বড় ওয়েব প্ল্যাটফর্ম থাকত, আর দেশীয় বড় তারকাদের ছবি সেখানে মুক্তি পেত, তাহলে খুব তৃপ্তি নিয়ে দেখতে পারতাম। বাইরের দেশের কত ছবি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাচ্ছে। মুক্তির প্রথম দিনেই সারা বিশ্ব সেই ছবি দেখতে পারছে। আমাদের এখানেও এমনটা হওয়া উচিত।

এবার ঈদে ভাবছি নিজের অভিনীত ছবি নতুন করে দেখব। ‘আশিকী’ দিয়েই শুরু করব। কিছু জনপ্রিয় সিরিজ আছে যেগুলো এখনো দেখা হয়নি, সেগুলোও দেখব। এর মধ্যে আছে ‘দ্য ফ্যামিলি ম্যান’, ‘মেড ইন হ্যাভেন’সহ আরো কিছু সিরিজ।

 

শাবনূর অভিনীত ছবি

পূজা চেরী

আমি বাংলা ছবির পোকা। বরাবরই আমার প্রিয় নায়িকা শাবনূর। শাবনূর আপুর বেশ কয়েকটি ছবি দেখার পরিকল্পনা করেছি। ‘মিশন এক্সট্রিম’, ‘অপারেশন সুন্দরবন’, ‘অন্তরাত্মা’, ‘শান’—ঈদের ছবিগুলো যদি অন্যান্য দেশের মতো ওটিটিতে মুক্তি পেত তাহলে কত্ত ভালো হতো। প্রায়ই ভক্তরা প্রশ্ন করে ‘শান’ কবে দেখব? ঈদে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল, কিন্তু সেটা তো সম্ভব হচ্ছে না। পরের ঈদেও পরিস্থিতি কী হবে কে জানে! শাকিব খানের মতো তারকার ছবি (নবাব এলএলবি) যদি ওটিটিতে মুক্তি পায় তাহলে অন্যদের ছবি মুক্তি দিলে ক্ষতি কী, বুঝি না!

অনুলিখন : সুদীপ কুমার দীপ



সাতদিনের সেরা