kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

ডেইজির বাজিমাত

৪ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ডেইজির বাজিমাত

‘স্টার ওয়ারস—দ্য ফোর্স অ্যাওয়াকেন্স’ দিয়ে রাতারাতি পরিচিতি পেয়েছিলেন ডেইজি রিডলি। অভিনেত্রীর নতুন ছবি ‘কেওস ওয়াকিং’ আগামীকাল মুক্তি পাবে প্রেক্ষাগৃহে। তাঁকে নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

সালটা ২০১৪। পুরো পৃথিবী ‘স্টার ওয়ারস’ প্রত্যাবর্তনের জ্বরে কাঁপছে। তখনই হুট করে পরিচালক জে জে আব্রামসের ঘোষণা—এই ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করবেন অখ্যাত ডেইজি রিডলি। শোরগোল পড়ে গেল সর্বত্র—কে এই ডেইজি? অনেকে তো পরিচালককে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ করলেন, বললেন ‘স্টার ওয়ারস’ নিয়ে জুয়া খেলছেন আব্রামস। তবে সবার আশঙ্কা মিথ্যা প্রমাণিত হলো, জয় হলো পরিচালকের সাহসের। ‘স্টার ওয়ারস—দ্য ফোর্স অ্যাওয়াকেন্স’ বক্স অফিসে আয় করে দুই বিলিয়ন ডলারের বেশি, আর ডেইজি হয়ে ওঠেন জগতখ্যাত এক তারকা।

ডেইজির জন্ম লন্ডনে। বাবা চিত্রগ্রাহক, মা ব্যাংকার। ছোটবেলা থেকেই ডেইজি ‘হ্যারি পটার’ ভক্ত। অভিনয়ের ইচ্ছেটা জাগে ড্যানিয়েল র‌্যাডক্লিফ আর এমা ওয়াটসনদের দেখেই। ৯ বছর বয়সে অভিনয়ের স্কুলে বৃত্তি পান। তখনই ঠিক করেন এ জগতেই থাকবেন। শুরুতে বিভিন্ন টিভি সিরিজে ছোট চরিত্র করতেন। সাফল্য ধরা দিচ্ছিল না মোটেও। ভাগ্যদেবী হয়তো অপেক্ষা করে ছিলেন ‘স্টার ওয়ারস’-এর মতো বড় উপলক্ষের। শুধু ব্যাবসায়িক সাফল্যই নয়, হ্যারিসন ফোর্ড, অস্কার আইজ্যাকদের মতো তারকাবহুল এই ছবিতে অভিনেত্রী হিসেবেও নজর কাড়েন ডেইজি। চলচ্চিত্র বাছাইয়ে একটু বেশিই খুঁতখুঁতে এই তারকা। ‘স্টার ওয়ারস—দ্য ফোর্স অ্যাওয়াকেন্স’-এর পর অভিনয় করেছেন মোটে পাঁচটি চলচ্চিত্রে। এর মধ্যে দুটিই আবার ‘স্টার ওয়ারস’-এর পরের কিস্তি। তবে যেকোনো ঘরানার চলচ্চিত্রেই যে তিনি সমান মানানসই, তার প্রমাণ দেন ২০১৭ সালের ‘দ্য মার্ডার অন দ্য ওরিয়েন্ট এক্সপ্রেস’-এ। আগাথা ক্রিস্টির উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত চলচ্চিত্রে মেরি ডেবেনহাম চরিত্রে তাঁর অভিনয় ভক্তকুলের মন কেড়েছিল। চলচ্চিত্রটি আয় করেছিল সাড়ে তিন শ মিলিয়নেরও বেশি ডলার। এ ছাড়া হ্যামলেটের প্রেমিকাকে ঘিরে নির্মিত ছবি ‘ওফেলিয়া’তেও অভিনয় করেছেন নাম ভূমিকায়। শুধু পর্দার অভিনয়ই নয়, কণ্ঠের জাদুতেও বিশ্বজয় করেছেন। ২০১৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত অ্যানিমেটেড ছবি ‘পিটার র‌্যাবিট’-এ কণ্ঠ দিয়েছেন।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি সংগ্রামী এক নারী। ১৫ বছর বয়স থেকেই ভুগছেন জরায়ুর জটিল রোগ ‘এন্দোমেট্রিওসিস’-এ। প্রচণ্ড ব্যথা নিয়েও ক্যামেরার সামনে হাসিমুখে অভিনয় করেছেন। বলেন, ‘রোগটাকে জীবনের অংশ হিসেবেই ধরে নিয়েছি।’ ডেইজি সম্পর্কে আরেকটি তথ্য, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই নেই তিনি। ‘আমি আসলে সত্যিকারের জীবনটাকেই উপভোগ করতে চাই, সামাজিক মাধ্যমের নয়’, বলেন তিনি। করোনার পর এখন টানা শুটিংয়ে ব্যস্ত ডেইজি। সামনে আসছে কয়েকটি বড় বাজেটের ছবি। তালিকার প্রথম নামটিই ‘কেওস ওয়াকিং’। ডুগ লিম্যানের সাই ফাই ঘরানার ছবিটি যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পাবে কাল। প্যাট্রিক নেসের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত ছবিটি শুরু থেকেই একটার পর একটা ঝামেলা পার করছে। ২০১৯ সালে মুক্তি দেওয়ার কথা থাকলেও পরে চিত্রনাট্যে বদল এনে কিছু অংশের চিত্রায়ণ করা হয় নতুনভাবে। ছবিতে ডেইজির সহশিল্পী ‘স্পাইডারম্যান’খ্যাত টম হল্যান্ড।

মন্তব্য