kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৩ রজব ১৪৪২

তিন মাধ্যমের মিম

বছরের প্রথম দিনে ইউটিউবে ঝড় তুলল বিদ্যা সিনহা মিমের নাটক ‘হ্যালো বেবি’। এক দিনে ১০ লাখ ভিউ! পরের সপ্তাহে আলোচিত হলেন জি-ফাইভের ওয়েব ছবি ‘হোয়াট দ্য ফ্রাই’ দিয়ে। এ তো গেল টিভি-ওয়েবের খবর, মিমের সিনেমার খবর কী? লিখেছেন মীর রাকিব হাসান

২১ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তিন মাধ্যমের মিম

তখন মধ্যদুপুর, তার মানে আয়েশ করে কথা বলা যাবে? সম্মতি দিলেন সাবেক ‘লাক্স সুন্দরী’। শুরুতেই জানালেন, তাঁর শিডিউল একেবারে ফাঁকা। খুবই কম কাজ করছেন। করোনার ভয় এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেননি। ‘নিউ নরমাল’-এ নতুন ছবির শুটিংয়ে নেমেছেন অনেকেই। কিছু ছবির প্রস্তাবও পাচ্ছেন। কিন্তু আরো সবুর করতে চান মিম। বলেন, “খুব কমন কথাটাই বলছি, ‘বেছে বেছে কাজ করছি এখন।’ অভিনয়ে অনেক দিন তো হলো, দায়িত্ববোধও বাড়ছে প্রতিনিয়ত। এখন দর্শকের কাছে জবাবদিহি করতে      হয় আমাকে।”

তার মানে মানসম্মত কাজ পেতেই শিডিউল খাতা ফ্রি রাখছেন? ‘অনেকটা তাই। সিনেমায় নিয়মিত হওয়ার পর অন্য মাধ্যমে কাজ করলে এখনো কথা ওঠে। কিন্তু লক্ষ করলে দেখবেন, যেখানেই ভালো চরিত্র পাই কাজটা করি—হোক সেটা নাটক বা ওয়েবের কাজ।’

করোনায় ছয় মাস স্বেচ্ছাবন্দি থাকার পর অভিনয়ে ফিরেছেন নাটক দিয়ে—কাজল আরেফিন অমির ‘হ্যালো বেবি’। ২৬ ডিসেম্বর আরটিভিতে প্রচারের পর নতুন বছরের প্রথম দিনে ইউটিউবে এলো নাটকটি। তাহসান-মিম জুটির নাটকটি প্রথম দিনেই ১০ লাখ লোক দেখেছে। ৯ জানুয়ারি জি-ফাইভে মুক্তি পেল ওয়েব ছবি ‘হোয়াট দ্য ফ্রাই’। গত মাসেই ছবিটির শুটিং করেছেন মিম। ‘দেবী’ খ্যাত অনম বিশ্বাসের প্রথম ওয়েব ছবিটিতে মিমের সঙ্গে আছেন প্রীতম হাসান, ইরেশ যাকের। এক চিত্রনায়িকা ও সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের সম্পর্কের গল্প দেখানো হয়েছে এখানে। মিমের গ্ল্যামারাস উপস্থিতি ও অভিনয়ের প্রশংসা ঝরেছে উপমহাদেশের অনেক দর্শকের কণ্ঠেই।

সময় এখন ওটিটির, কথাটা মানেন মিম। দর্শকের কাছাকাছি থাকার মাধ্যম এখন এই প্ল্যাটফর্ম। বিশ্বজুড়ে বড় বড় সেলিব্রিটিও কাজ করছেন ওয়েবের জন্য। বলেন, ‘ওয়েব প্ল্যাটফর্মের ফলে শিল্পীদের কাজের জায়গা বেড়েছে। একজন নতুন শিল্পীও এখানে সুযোগ পাচ্ছেন। সিনেমার শুটিংয়ের বাইরে আমিও ওয়েবের জন্য সময় বরাদ্দ রাখছি।’

মিমের হাতে আছে রায়হান রাফির তিন সিনেমা। করোনার আগে ‘ইত্তেফাক’-এর অর্ধেক শুটিং করেছেন। নভেম্বরে একই পরিচালকের ‘দামাল’ দিয়ে ফিরেছেন সিনেমার শুটিংয়ে। মুক্তির অপেক্ষায় ‘পরাণ’। তিনটি ছবি নিয়েই উচ্ছ্বসিত মিম, তবে ‘দামাল’ নিয়ে একটু বেশিই। মুক্তিযুদ্ধের সময়ের স্বাধীন বাংলা ফুটবল দল নিয়ে ছবিটি। এখানে প্রতিবাদী এক মেয়ের চরিত্রে মিম। ‘মেয়েটা খুব সহজ-সরল স্বভাবের হলেও পরিবর্তিত পরিস্থিতির কারণে প্রতিবাদী হয়ে ওঠে। একই মেয়ের দুই রূপ তুলে ধরা কষ্টের এবং চ্যালেঞ্জেরও। সবচেয়ে ভালো লাগার বিষয় হচ্ছে, মুক্তিযুদ্ধের সময়টা এখানে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে। আমাদের গৌরবোজ্জ্বল স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তির এই বছরে মুক্তি পাবে ছবিটি। এটা অনেক আনন্দের’—বললেন মিম।

‘দামাল’-এর পরের লটের শুটিংয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আরেকটা নতুন সিনেমা হাতে নিয়েছেন। এখনই মিডিয়ায় কিছু বলা বারণ। তবে ঘোষণা দেবেন এ মাসেই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা