kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ মাঘ ১৪২৭। ২১ জানুয়ারি ২০২১। ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

দাবায় বাজিমাত

৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দাবায় বাজিমাত

দাবা নিয়ে সিরিজ দ্য কুইনস গ্যাম্বিট। স্পাই-থ্রিলার আর নানা ধরনের হরর সিরিজকে হটিয়ে এটিই হয়ে উঠেছে নেটফ্লিক্সের সবচেয়ে বেশি দেখা মিনি সিরিজ! সিরিজটি নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

‘দ্য কুইনস গ্যাম্বিট’ যখন মুক্তির ঘোষণা এলো, মোটেও শোরগোল ওঠেনি। সবাই ধরেই নিয়েছিল নেটফ্লিক্সের আরেকটি সাধারণ সিরিজই হবে এটি। এটা অস্বাভাবিকও না। হালে বেশির ভাগেরই আগ্রহ যেখানে থ্রিলার, হরর বা রহস্যধর্মী সিরিজ নিয়ে; সেখানে দাবা নিয়ে সিরিজে মাথা ঘামায়নি কেউ। তবে মুক্তির পর পাশার দান উল্টে দিয়েছে সিরিজটি। এরই মধ্যে নেটফ্লিক্সের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি দেখা মিনি সিরিজগুলোর তালিকায় শীর্ষে জায়গা করে নিয়েছে! ২৮ দিনে সিরিজটি দেখেছে ছয় কোটি ২০ লাখ দর্শক। ৬৩টি দেশে সবচেয়ে বেশি দেখা সিরিজের তালিকায় শীর্ষে, সেরা দশে আছে ৯৩টি দেশে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, এক দাবাড়ুর জীবন নিয়ে নির্মিত সিরিজটি এতটাই জনপ্রিয় হয়েছে যে হুট করে বিশ্বজুড়ে দাবা বোর্ডের বিক্রি বেড়ে গেছে কয়েক গুণ। স্কট ফ্র্যাংক ও অ্যালান স্কটের সিরিজটি নেটফ্লিক্সে আসে ২৩ অক্টোবর। প্রধান চরিত্র বেথ হারমন নামের এক অনাথ কিশোরী। বিশ্বের সেরা দাবাড়ু হওয়ার স্বপ্নে বিভোর বেথের এগিয়ে চলার গল্পই সিরিজের পটভূমি। মায়ের মৃত্যুর পর এতিমখানায় বড় হওয়া বেথের ধ্যানজ্ঞান শুধুই দাবা। এগিয়ে চলার এ গল্পে তার জীবনে বাধা হয়ে আসে মাদক। তবু থামে না সে। প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অ্যানা টেইলর-জয়।

বাস্তবঘেঁষা গল্পের জন্য সিরিজটি মুক্তির পর থেকেই সবার কৌতূহল—এটি কি আদৌ সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত? আদতে সিরিজটি তৈরি হয়েছে ওয়াল্টার টেভিসের ১৯৮৩ সালে লেখা একই নামের উপন্যাস অবলম্বনে। সিরিজটি জনপ্রিয় হওয়ার পর টেভিসের বইটির বিক্রিও বেড়েছে হু হু করে। সিরিজটির উপদেষ্টা সর্বকালের অন্যতম সেরা দাবাড়ু গ্যারি কাসপারভ। সিরিজটির নামও নেওয়া হয়েছে দাবার একটি বিখ্যাত চাল অবলম্বনে। ‘কুইন্স গ্যাম্বিট’ হলো দাবার একটি বিশেষ ওপেনিং।

এই অক্টোবরে মুক্তি পেলেও ১৯৯২ সালেই উপন্যাসটি অবলম্বনে সিরিজ নির্মাণের অনুমতি নেন স্কট ফ্র্যাংক। বারবার চেষ্টার পর অবশেষে ২০১৯ সালে নেটফ্লিক্স সিরিজটি নির্মাণে রাজি হয়। এ স্বপ্নে তাঁর সঙ্গী হন অ্যালান স্কট। কিন্তু করোনার জন্য সব কিছুই অনিশ্চিত হয়ে যায়, আটকে যায় শুটিং। ফ্র্যাংক নিজেও করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। সুস্থ হয়েই আবার নেমে যান নির্মাণে।

২৪ বছর বয়সে ‘দ্য কুইন্স গ্যাম্বিট’-এর প্রধান চরিত্রে অভিনয় করে হাজারো ভক্তের মন জয় করে নিয়েছেন অ্যানা টেইলর-জয়। অনেক সমালোচকই তাঁকে ‘হলিউডের নতুন রানি’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। তবে অ্যানা অবশ্য এত প্রশংসায় ভেসে যেতে চান না। বলেছেন, ‘আপাতত অভিনয়টা উপভোগ করতে চাই।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা