kalerkantho

রবিবার। ৩ মাঘ ১৪২৭। ১৭ জানুয়ারি ২০২১। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

‘আমি আর কতবার ফিরব’

২৬ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



‘আমি আর কতবার ফিরব’

ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

ক্যারিয়ারে প্রথমবার টিভি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছেন। সম্প্রতি অভিনয় করলেন বেশ কিছু নাটকেও। তবু পত্রিকায় শিরোনাম হচ্ছে ‘ফিরলেন সারিকা’। মীর রাকিব হাসানের কাছে প্রবল আপত্তি জানিয়েছেন সারিকা সাবরিন।

সারিকা কি আবার ফিরলেন? প্রশ্নটার উত্তর দেওয়ার জন্য যেন মুখিয়ে ছিলেন মডেল-অভিনেত্রী, ‘আমাকে নিয়ে কিছুদিন পরপরই এমন শিরোনাম হয়। কেন হয় জানি না! এ বছর জুলাইয়ে কাজ শুরু করেছি, এর মধ্যে কিন্তু কোনো বিরতি দিইনি। ঈদে আমার আটটি নাটক প্রচারিত হয়েছে। মাঝখানে তো শুটিংই হয়নি। গত মাস থেকে কাজের ফ্লো আবার বেড়েছে। সেখানে আমার ফেরাও কী, আবার হারিয়ে যাওয়ারও বা কী!  ক্যারিয়ারে একবারই ব্রেক নিয়েছিলাম তিন বছরের, আমার মেয়ের জন্মের সময়। ওর বয়স এখন পাঁচ বছর। এই পাঁচ বছরে মানুষ আমাকে কম হলেও ২০ বার ফিরিয়েছে। আমি আর কতবার ফিরব? প্রশ্নটা আমারও।’

 মেয়ে আনায়াহ ছোট ছিল বলে বিরতি নিয়েছিলেন। এখন কাজে নিয়মিত হতে পারছেন, কারণ মেয়ে বড় হয়েছে। আগে শুটিংয়ে যাওয়ার আগে কান্না করত, এখন সেটা করে না। আনায়াহ এখন বোঝে, মা কাজে যাচ্ছে, আবার সময়মতো ফিরবে। সারিকা বলেন, ‘তা ছাড়া আমি নিজস্ব নিয়মে কাজ করি। যাঁরা আমার ক্যারিয়ার গ্রাফ দেখেছেন, তাঁরা জানেন আমি কখনোই সারা মাস, সারা বছর ধরে কাজ করিনি। পারিও না। আমার রেস্ট দরকার হয়। মুড বুঝে কাজ করি।’

অনেক পরিচালকের অভিযোগ, সারিকাকে যখন-তখন পাওয়া যায় না। এর উত্তরও দিলেন সারিকা, ‘আমি ফেসবুক বা ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করি না। যে কারণে ক্ষণে ক্ষণে আমার শুটিংয়ের ছবি ফেসবুকে পাওয়া যায় না। এ কারণে অনেকে ভাবেন আমি কাজ করি না বা খুঁজলে পাওয়া যায় না।’

আড়াই বছরের বেশি সময় ধরে ফেসবুকে নেই সারিকা। অবশ্য তাঁর নামে শখানেক অ্যাকাউন্ট পাওয়া যাবে ফেসবুকে। তাঁর ছবি দিয়ে নামটা একটু এদিক-ওদিক করে কারা যেন চালায় এসব। সারিকা বলেন, ‘নাটকে আমার সহশিল্পী বা পরিচালকদের ফেসবুকে পোস্ট করা ছবিতে অনেকে যখন আমাকে দেখেন তখন চমকে ওঠেন, এই বুঝি সারিকা কাজ শুরু করল।’

সারিকাকে না পাওয়ার আরেকটি কারণ তাঁর মুঠোফোন নম্বর। নতুন নম্বরটা অনেকেই জানেন না। ‘যে নম্বরটা অনেক দিন ধরে ব্যবহার করছিলাম (শেষের তিন ডিজিট ৭৭৭), যেটা সবাই জানত। সেখানে হয়তো কল দিয়ে না পেয়ে বলেন আমাকে পাওয়া যায় না। অথচ আমার নতুন নম্বরটা সার্বক্ষণিক খোলা থাকে’—কৈফিয়ত দেওয়ার ভঙিতে বললেন সারিকা।

কথামতো নিজের ব্যস্ততার এই মাসের হিসাব দিলেন সারিকা। মাসের শুরুতেই মোশাররফ করিমের সঙ্গে করলেন আবুল কালাম আজাদের ‘যমজ ১৪’। প্রায় আট বছর আগে শুরু হওয়া নাটকটির সিক্যুয়ালে এবারই প্রথম অভিনয় করেছেন সারিকা। এখানে মোশাররফ করিম আছেন চারটি চরিত্রে, সারিকা দুটি চরিত্রে। ‘জীবনে প্রথমবারের মতো দ্বৈত চরিত্র করলাম। দুজন মিলে ছয়টা চরিত্র। বিষয়টা মজারই। টেকনিক্যালি অনেক কিছু শিখলাম’, বললেন সারিকা।

বি ইউ শুভর দুটি নাটক করেছেন, একটি মিশু সাব্বিরের সঙ্গে (নাম মনে করে বলতে পারলেন না), আরেকটি সজলের সঙ্গে ‘থার্ড ক্লাস’। সজলের সঙ্গে করেছেন দীপু হাজরার ‘গেম অব লাইফ’ও, শ্যামল মাওলার সঙ্গে শফিকুল ইসলাম রিপনের ‘ভালোবাসা যে পথে হারায়’। গতকাল (২৫ নভেম্বর) শুরু হয়েছে চয়নিকা চৌধুরীর নাটকের শুটিং, সঙ্গে আছেন আনিসুর রহমান মিলন।

বাংলাভিশনের জনপ্রিয় সেলিব্রিটি টক শো ‘আমার আমি’র উপস্থাপনা শুরু করেছেন। তিনটি পর্ব প্রচারিত হয়েছে। এর আগে কখনোই উপস্থাপনা করেননি সারিকা। ‘প্রযোজকের প্রস্তাব পেয়ে প্রথমে রাজি হইনি, উপস্থাপনা বিষয়টা অন্য রকম। আমি কি পারব? প্রযোজক সাজ্জাদ হুসেইন সাহস দিলেন। প্রথম দিন শুটিংয়ে একটু নার্ভাস ছিলাম, আস্তে আস্তে উপস্থাপনাটা উপভোগ করা শুরু করলাম। এক পর্বে নিলয় আলমগীর-শ্যামল মাওলা, শবনম ফারিয়া-মনোজ প্রামানিক আরেক পর্বে, শাফিন আহমেদ ও তাঁর ছেলে এসেছেন আরেকটি পর্বে। আগামী পর্বে চঞ্চল চৌধুরী আসবেন, তার পরের পর্বে হৃদয় খান’, বললেন সারিকা।

এখন ভালো ভালো সিনেমা হচ্ছে, মনে করেন সারিকা। সুযোগ পেলে চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে চান। কিন্তু তাঁর কাছে নাকি কোনো প্রস্তাবই আসছে না! সারিকা বলেন, ‘একটা সময় প্রায় প্রতিদিনই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের অফার পেতাম। তখন সিনেমায় জড়ানোর ইচ্ছে ছিল না। এখন সিনেমা করতে চাই, কিন্তু সে রকম অফার পাচ্ছি না।’

সারা বিশ্বই এখন করোনার কবলে। করোনার ঝড় বয়ে গেছে সারিকার পরিবারেও। তাঁর বাবা করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। হাসপাতালের আইসিইউতেও থাকতে হয়েছিল তাঁকে। এখন তিনি অনেকটাই সুস্থ। বাবাকে নিয়ে বেশ কিছুদিন উৎকণ্ঠায় ছিলেন।

মন্তব্য