kalerkantho

বুধবার । ১৫ আশ্বিন ১৪২৭ । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১২ সফর ১৪৪২

লক্ষ্যে স্থির

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



লক্ষ্যে স্থির

শাকিব খানের সঙ্গে ‘আগুন’ দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন জাহারা মিতু। হাতে আছে পশ্চিমবঙ্গের দেবের সঙ্গে ‘কমান্ডো’ও। বড় পর্দায় নাম লেখালেও মিতুকে দেখা যাচ্ছে টিভি নাটকেও! সপ্তাহখানেক আগেও প্রচার শুরু হয়েছে ধারাবাহিক ‘বিবাহ হবে’। কী ঘটনা? মিতুর কথা শুনেছেন মীর রাকিব হাসান

 

শরীরচর্চা, মারপিট, নাচের ক্লাস—প্রতিদিনের রুটিনে এর বাইরে আর কোনো কাজ নেই তাঁর। লম্বা সময় ধরে করেননি অভিনয়, মডেলিং বা উপস্থাপনা। তবু মিতুকে দেখা যাচ্ছে টিভিতে। ৬ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাভিশনে প্রচার শুরু হয়েছে রওনক হাসানের পরিচালনায় ‘বিবাহ হবে’। মোশাররফ করিম, অপর্ণা ঘোষ, মিতুসহ একঝাঁক তারকা অভিনীত ধারাবাহিকটি এরই মধ্যে জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

মিতু বলেন, ‘প্রায় দেড় বছর আগে ধারাবাহিকটির শুটিং করেছিলাম। তখনো চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করিনি। এ নাটকে আমার নাম পরী। আমার বিয়ে নিয়েই সবার টেনশন। সবাই আমাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখে, বিয়ে করতে চায়। ময়মনসিংহের আঞ্চলিক ভাষায় সংলাপ। আমার জন্য একটু কঠিনই ছিল। একজন প্রশিক্ষক ছিলেন, তিনিই উচ্চারণ ঠিক করে দিতেন। বেশ মজা করে কাজটি করেছি।’

শুধু এই ধারাবাহিক নয়, গেল দুই ঈদে মিতু অভিনীত যত নাটক প্রচারিত হয়েছে, সবই দেড় থেকে দুই বছর আগে শুটিং করা। ‘আমি এমনিতেই নাটক করতাম খুব কম। আমার মূল কাজ ছিল স্পোর্টস অ্যাংকরিং। বিপিএল থেকে শুরু করে ক্রিকেট ও ফুটবল বিশ্বকাপ নিয়ে অনুষ্ঠান করতাম। সময়-সুযোগ পেলে নাটক করতাম’, বললেন মিতু।

চলচ্চিত্রে নাম লেখানোর পরপরই উপস্থাপনা এবং নাটকে অভিনয় বাদ দিয়েছেন। সিনেমার শুটিংয়ের আগে সময় নিয়ে প্রস্তুতি নিয়েছেন। করোনার বিরতিতেও অব্যাহত রেখেছেন নাচ-ফাইট-শরীরচর্চা

গত বছর জুলাইয়ে ঘটা করে বদিউল আলম খোকনের ‘আগুন’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হলেন। প্রথম ছবিতেই মিতুর নায়ক শাকিব খান। করোনার কারণে ছবিটির শুটিং বন্ধ। অন্যদিকে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত লক হওয়ার ঠিক আগের দিন কলকাতা থেকে দেবের বিপরীতে ‘কমান্ডো’ ছবির শুটিং করে দেশে ফেরেন মিতু। শামীম আহমেদ রনীর এই ছবিতে অভিনয় করছেন দুই বাংলার শিল্পীরা। শিগগিরই ফের ছবি দুটির শুটিং শুরু হবে। সেই অপেক্ষায় দিন গুনছেন মিতু।

চলচ্চিত্রে নাম লেখানোর পরপরই উপস্থাপনা এবং নাটকে অভিনয় বাদ দিয়েছেন। সিনেমার শুটিংয়ের আগে সময় নিয়ে প্রস্তুতি নিয়েছেন। করোনার বিরতিতেও অব্যাহত রেখেছেন নাচ-ফাইট-শরীরচর্চা। আবার কবে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াবেন? মিতু বলেন, “শাকিব ভাইয়ের শিডিউল পেলেই ‘আগুন’-এর শুটিং। এ সপ্তাহেই তিনি ‘নবাব এলএলবি’র  শুটিং শুরু করেছেন। এই ছবি শেষ করেই হয়তো ‘আগুন’-এর শিডিউল দেবেন।”

আর ‘কমান্ডো’? “ছবির কারিগরি দলের সদস্যদের অনেকেই বাংলাদেশ ও ভারতের। আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু না হওয়া পর্যন্ত কেউই কাজ করতে পারছি না। বাংলাদেশ-ভারতের বাইরে থাইল্যান্ডেও কিছু অংশের শুট হওয়ার কথা। যত দূর জানি দেব দাদা ‘কমান্ডো’কেই প্রাধান্য দিচ্ছেন। উনি শুটিং শুরু করলে আগে ‘কমান্ডো’ই করবেন”, বললেন মিতু।

নতুন আরো দুটি সিনেমার পাণ্ডুলিপি তাঁর হাতে। দুটিই অ্যাকশন সিনেমা। একটু দ্বিধায় আছেন মিতু। কারণটাও বললেন, ‘আগের দুটি ছবির মতো নতুন ছবি দুটিও অ্যাকশননির্ভর। চিন্তা করছি পর পর একই ধরনের ছবি করা ঠিক হবে কি না। এসব চিন্তা করেই এখনো সাইন করিনি। দেখি আরেকটু ভাবি।’

প্রচুর বই পড়েন মিতু। গত দুই-তিন বছরে ব্যস্ততার কারণে ঠিকমতো পড়া হয়নি। এই লকডাউনে সুযোগ পেয়ে প্রচুর বই পড়েছেন। চীনে গিয়ে ফ্যাশন ডিজাইনে মাস্টার্স করেছেন। তিন বছর কাজ করেছেন একটি ফ্যাশন হাউসের ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট প্রধান হিসেবে। স্বপ্ন দেখেন নিজের ফ্যাশন হাউস খোলার। তবে আপাতত মন দিতে চান চলচ্চিত্রেই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা