kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

আরেক অস্ট্রেলিয়ান

এলিজাবেথ ডেবিকি থেকে মার্গট রবি—হালে হলিউড দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ানরা। ক্যাথেরিন ল্যাংফোর্ডকেও মনে করা হচ্ছে পূর্বসূরিদের মতোই সম্ভাবনাময়। ‘থার্টিন রিজন হোয়াই’ দিয়ে ঝড় তোলা অভিনেত্রীর নতুন সিরিজ ‘কার্সড’ আসছে আগামীকাল। তাঁকে নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

১৬ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আরেক অস্ট্রেলিয়ান

২০১৭ সালে নেটফ্লিক্সে মুক্তি পায় ‘থার্টিন রিজনস হোয়াই’। এ সিরিজের মাধ্যমেই অস্ট্রেলিয়ার পার্থ থেকে আসা এক অপরিচিত অভিনেত্রী রাতারাতি আলোচনায় আসেন। হান্নাহ বেকার চরিত্রটি পরিণত হয় তরুণদের আইকনে। ছোটবেলায় কিন্তু অভিনেত্রী হওয়ার কোনো পরিকল্পনাই ছিল না ক্যাথেরিন ল্যাংফোর্ডের! বাবা, মা দুজনই ডাক্তার। স্কুলে পড়াকালীন ক্যাথেরিনের আকর্ষণও ছিল এই পেশায়। সুরেলা কণ্ঠের অধিকারী হওয়ায় মায়ের আগ্রহে গান শিখতেন। ছিলেন জাতীয় পর্যায়ের সাঁতারুও। সব কিছু বদলে যায় ২০১২ সালে। অস্ট্রেলিয়ায় লেডি গাগার এক কনসার্ট থেকে ফেরার পথে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন গান, না হয় অভিনয়ই হবে তাঁর ভবিষ্যৎ। ষোলো বছর বয়সে তাঁর গাওয়া আত্মহত্যাবিরোধী গান ‘ইয়ং অ্যান্ড স্টুপিড’ জনপ্রিয়তা পায় অস্ট্রেলিয়ায় তরুণ সমাজে। তবে গায়িকা হিসেবে জনপ্রিয়তা পেলে অভিনয়েই মনস্থির করেন। বাবা-মাকে মিথ্যা বলে তিনটি পার্ট-টাইম চাকরি করে অভিনয় শিক্ষার কোর্সে ভর্তি হন।  

তিনটি কম বাজেটের স্বাধীন চলচ্চিত্র দিয়ে অভিনয়ের শুরু। এর মধ্যে ‘ডটার’ প্রদর্শিত হয় কান চলচ্চিত্র উৎসবে। এরই মধ্যে উইলিয়াম শেকসপিয়রের জীবন অবলম্বনে নির্মিত সিরিজ ‘উইল’-এ অডিশন দেন। শেষ পর্যন্ত চরিত্রটি পান আরেক অভিনেত্রী অলিভিয়া ডেজং। এ হতাশার মধ্যে ক্যাথেরিন খেয়াল করেন, নেটফ্লিক্স ‘থার্টিন রিজনস হোয়াই’-এর প্রধান চরিত্রের জন্য নতুন কাউকে খুঁজছে। স্কাইপিতে অডিশন দেন। অনলাইনেই ক্যাথেরিন মুগ্ধ করেন নির্মাতাদের। কখনো আমেরিকায় পা না রাখা ক্যাথেরিনের জন্য মাত্র ১০ দিনে ভিসা জোগাড় করাও ছিল আরেক যুদ্ধ। তবে ভাগ্যদেবী যাঁর সহায়, তাঁকে কি আর আটকে রাখা যায়! প্রথম সিরিজে অভিনয় করে তৈরি করেন ইতিহাস, পর্দায় শক্তিশালী নারী চরিত্রের প্রতীকে পরিণত হন।

প্রথম সিজনে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করলেও পরবর্তী সময়ে সিরিজে ক্যাথেরিনকে আর নিয়মিত দেখা যায়নি। বিশেষ করে শেষ সিজনে অনুপস্থিতি নিয়েও মিডিয়ায় শোরগোল উঠেছিল। অভিনেত্রীর ভাষ্য মতে, অন্যান্য প্রজেক্ট নিয়ে এতটাই ব্যস্ত ছিলেন, সময় বের করতে পারেননি থার্টিন ‘রিজনস হোয়াই এর’ জন্য। পাশাপাশি ‘লাভ, সাইমন’, ‘নাইভস আউট’-এর মতো জনপ্রিয় চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন চব্বিশ বছর বয়সী এ তারকা। ‘অ্যাভেঞ্জারস—এন্ডগেম’-এ টনি স্টার্কের কন্যা মর্গান স্টার্ক চরিত্রেও অভিনয় করেছিলেন। তবে সম্পাদনার কাটাছেঁড়ায় বাদ পড়ে দৃশ্যটি। অনেক ভক্ত আশায় আছেন, পরবর্তী সময়ে আবারও মার্ভেলের পৃথিবীতে দেখা যাবে ক্যাথেরিনকে। অভিনয়ের পাশাপাশি পরিবেশ ও রাজনীতি বিষয়েও বেশ সরব এ অভিনেত্রী।

১৭ জুলাই নেটফ্লিক্সে আসছে ক্যাথেরিন ল্যাংফোর্ড অভিনীত নতুন সিরিজ ‘কার্সড’। প্রখ্যাত নির্মাতা ফ্রাংক মিলারের নির্মাণে ফ্যান্টাসি এ সিরিজে ক্যাথেরিন অভিনয় করেছেন কিং আর্থারের গল্পের বিখ্যাত ‘লেডি অব দ্য লেক’ চরিত্রে। চরিত্রটি সম্পর্কে ক্যাথেরিন বলেন, ‘দুটি ভিন্ন সময়ের গল্প হলেও হান্নাহর সঙ্গে অনেক মিল রয়েছে চরিত্রটির। দুজনেই শক্তিশালী নারী চরিত্রের প্রতিরূপ।’   

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা