kalerkantho

শুক্রবার । ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭। ৭ আগস্ট  ২০২০। ১৬ জিলহজ ১৪৪১

বিশ্বসংগীত

৬ এর ৬

২ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



৬ এর ৬

২০২০ সালের প্রথম ছয় মাসে মুক্তি পেয়েছে অনেক অ্যালবাম। এর মধ্যে বিলবোর্ডের বিচারে সেরা ছয়টি নিয়ে লিখেছেন নাসরিন হক

সেলেনা গোমেজ, রেয়ার

বছর পাঁচেকের বিরতির পর ১০ জানুয়ারি মুক্তি পায় গায়িকার তৃতীয় অ্যালবাম। গেল পাঁচ বছর বিবারের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙা, কিডনি প্রতিস্থাপন, পুনর্বাসনকেন্দ্রে কাটানোসহ নানা ঝামেলার মধ্য দিয়ে গেছেন। অনুমিতভাবে অ্যালবামটির গানের কথায় এসেছে নানা ব্যক্তিগত প্রসঙ্গ। দর্শক-সমালোচকরাও দারুণ প্রশংসা করেন অ্যালবামটির। গায়িকার টানা তৃতীয় অ্যালবাম হিসেবে বিলবোর্ড ২০০-তে মুক্তির পরই শীর্ষে উঠে আসে ‘রেয়ার’। এ ছাড়া শীর্ষে ছিল অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, নরওয়ে, মেক্সিকো, বেলজিয়াম, পর্তুগাল ও স্কটল্যান্ডে।

 

লেডি গাগা, ক্রোম্যাটিকা

২৯ মে লকডাউনের মধ্যে মুক্তি পায় অ্যালবামটি। পুরো অ্যালবাম মুক্তির আগেই একটি সিঙ্গল ‘স্টুপিড লাভ’ মুক্তি পায় ফেব্রুয়ারিতে। ব্যাপক প্রশংসিত অ্যালবামটি ১০টি দেশে টপ চার্টের শীর্ষে ছিল। ‘ক্রোম্যাটিকা’ গাগার ষষ্ঠ অ্যালবাম, যা যুক্তরাষ্ট্রের টপ চার্টে জায়গা পেল। এ ছাড়া এ বছর যুক্তরাজ্যে সবচেয়ে দ্রুত বিক্রি হওয়া অ্যালবামও এটি।

 

হ্যালসি, ম্যানিক

আগে আরো দুই অ্যালবাম মুক্তি পেলেও ‘ম্যানিক’ই মার্কিন গায়িকার সবচেয়ে সফল অ্যালবাম। এ বছরের ১৭ জানুয়ারি মুক্তির পর বিলবোর্ড ২০০-র দ্বিতীয় স্থানে ছিল অ্যালবামটি। আসছে গ্র্যামিতে অন্যতম বড় প্রতিদ্বন্দ্বী মনে করা হচ্ছে হ্যালসিকে। ২০১৫-তে প্রথম একক অ্যালবাম মুক্তি পাওয়া গায়িকা ‘ম্যানিক’ দিয়ে সংগীতে তাঁর অবস্থান পাকাপোক্ত করেছেন তা বলাই যায়।

 

বিটিএস, ম্যাপ অব দ্য সৌল-৭

কোরিয়ান ‘বিটিএস’ এই সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যান্ড। সারা পৃথিবীতে তাদের কোটি ভক্ত। ২১ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাওয়া তাদের নতুন অ্যালবামটি আগেরগুলোর মতো সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রাখে। অ্যালবামটি রক, ট্রাপ ও ইলেকট্রনিক ডান্স মিউজিকে প্রভাবিত। সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা পাওয়া অ্যালবামটি প্রথম সপ্তাহেই চার লাখ ২২ হাজার ইউনিট বিক্রি হয়।

 

ডুয়া লিপা, ফিউচার নস্টালজিয়া

হালে সবচেয়ে জনপ্রিয় শিল্পীদের একজন এই ব্রিটিশ গায়িকা। ২০১৭ সালে প্রথম অ্যালবাম মুক্তির পর দ্রুতই শীর্ষ গায়িকাদের সারিতে উঠে এসেছেন তিনি। দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘ফিউচার নস্টালজিয়া’ মুক্তি পায় ২৭ মার্চ। লকডাউন, করোনা মহামারির প্রভাব, মুক্তির আগে অনলাইনে ফাঁস হওয়া কিছুই আটকাতে পারেনি এই অ্যালবামের সাফল্যকে। ৯টি দেশের টপ চার্টের শীর্ষে থাকা অ্যালবামটি লিপা তৈরি করেছেন ম্যাডোনা, কাইল মিনোগ, জিওয়েন স্টেফানি, ম্যাডোনাসহ অনেকের গানের প্রেরণায়।

 

জাস্টিন বিবার, চেঞ্জেস

ভালোবাসা দিবসে মুক্তি পেয়েছিল গায়কের পঞ্চম অ্যালবাম ‘চেঞ্জেস’। মুক্তির পরই বিলবোর্ড ২০০-র শীর্ষে ছিল। প্রথম সপ্তাহেই বিক্রি হয়েছিল দুই লাখ ৩১ হাজার ইউনিট। তবে সমালোচকরা অ্যালবামটি তেমন পছন্দ করেননি। গানের কথার সমালোচনা করেন, সব মিলিয়ে অনেকেই অ্যালবামটিকে ‘বৈচিত্র্যহীন’ বলে উল্লেখ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা